৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৯:৫১

বড় ভাইবোনের আচরণ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৫, ২০১৭,
  • 236 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

পৃথিবীতে ভাইবোনের সম্পর্কই বোধহয় সবচেয়ে মধুর ও কোমল সম্পর্ক। আদরে-ভালোবাসায়, আহ্লাদে-আবদারে ভরা এই মিষ্টি সম্পর্কের আরও মধুর করে তুলতে পরিবারের ছোট ভাইবোনের প্রতি বড় ভাইবোনের রয়েছে অনেক দায়িত্ব ও কর্তব্য।

মমতা ও বন্ধুত্বের এ সম্পর্কের মধ্য দিয়ে বড় ভাইবোনরা ছোটদের শেখাতে পারে আদব-কায়দা, আচার-ব্যবহার, পড়াশোনাসহ অনেক কিছু। লিখেছেন- আফরোজা আক্তার

ছোট ভাইবোনকে সময় দাও

শত ব্যস্ততার মাঝেও পরিবারের ছোট ভাইবোনের জন্য প্রতিদিন কিছু সময় দাও। এতে ছোট ভাইবোনের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হবে। তাকে কোনো আদেশ দিতে চাইলে আদেশের সুরে না বলে অনুরোধের সুরে বল এবং কাজ শেষে তাকে অবশ্যই ধন্যবাদ দাও। বড়দের এই আচরণ ছোট ভাইবোনকে অনেক বেশি প্রভাবিত করবে।

শেখাতে হবে আদব-কায়দা-সম্মান

ছোট ভাইবোনকে বড়দের প্রতি আদব-কায়দা-সম্মান শেখাতে বড় ভূমিকা রাখতে পারে বড় ভাইবোনরা। বড়দের সালাম দেয়া, সম্মান করা, বাসায় অতিথি আসলে কুশল বিনিময় করা ইত্যাদি বিষয়গুলো বড় ভাইবোনরা ছোট ভাইবোনকে সুন্দর করে বুঝিয়ে বলতে হবে। সেই সঙ্গে তাদের সামনে আপনিও বড়দের প্রতি এ ধরনের আচরণ করতে হবে। কারণ ছোট ভাইবোনরা বড় ভাইবোনকে অনুকরণ করে। এতে তারাও বড়দের সম্মান করা শিখবে।

ঝগড়া করা যাবে না

ছোট ভাইবোনের সঙ্গে ঝগড়া করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এতে করে ছোট ভাইবোনের মনে বড়দের প্রতি বিরূপ মনোভাব সৃষ্টি হবে না। তারা বড়দের সম্মান করতে শিখবে। এমনকি তাদের সামনে অন্য কারোর সঙ্গেও ঝগড়া করা যাবে না। কারণ ছোটরা অনুকরণপ্রিয়।

বিরক্ত হওয়া চলবে না

ছোট ভাইবোনের প্রতি বড় ভাইবোনের প্রায়ই অভিযোগ থাকে তারা কাজের সময় কিংবা পড়াশোনার সময় বড় ভাইবোনদের বিরক্ত করে। ছোটরা অনেক কিছু বোঝে না, বিরক্ত করবে এটাই স্বাভাবিক। তাই বলে ছোট ভাইবোনকে বকাঝকা করা উচিত হবে না। এতে সম্পর্কে তিক্ততা তৈরি হবে। বরং ছোটদের বিরক্ত করা বন্ধ করতে তাকে কোন কাজে ব্যস্ত করে দিতে হবে।

অভিভাবকদের মতো আচরণ করা যাবে না

বড় বলে ছোট ভাইবোনের সঙ্গে অভিভাবকদের মতো আচরণ করা যাবে না। এতে করে ছোট ভাইবোনের মানসিক বিকাশ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করতে হবে।

হাতেখড়ি ও স্কুল প্রস্তুতিতে

এখনও স্কুলে ভর্তি হয়নি এমন ছোট ভাইবোনকে খেলাচ্ছলে বড় ভাইবোনরা শেখাতে পারে সংখ্যা গণনা, অক্ষর চেনা, হাতের লেখাসহ নানা কিছু। খেলাচ্ছলে তাদের শেখানো যেতে পারে নিয়ম-শৃঙ্খলাও। শিশুরা স্কুলে ভর্তির আগে বড় ভাইবোনরা স্কুলের প্রস্তুতি নিয়ে কিছু জরুরি বিষয় যেমন-শিক্ষক ক্লাসে আসলে সবাইকে উঠে দাঁড়াতে হয়, সালাম দিতে হয়, সহপাঠীদের সঙ্গে ঝগড়া করা যাবে না ইত্যাদি। এতে প্রথম স্কুলে ভর্তি এবং পাঠদান নিয়ে ছোট ভাইবোনের আতংক অনেকটাই কমে আসবে।

ছড়া আবৃত্তি

খেলাচ্ছলে পরিবারের বড় শিশুরা উচ্চৈঃস্বরে ছোট ভাইবোনকে গল্প, ছড়া, বর্ণমালা পড়ে শোনাতে পারে। এতে ছোটরা মজা করতে করতেই শিখে ফেলবে ছড়া বলা, বিভিন্ন জিনিসের নাম, বর্ণমালা চেনা, সংখ্যা গণনা, লেখাসহ নানা কিছু। সেই সঙ্গে শিশুর শব্দভাণ্ডারে যোগ হবে নতুন নতুন শব্দ। তৈরি হবে সৃজনশীলতাও।

রঙ সম্পর্কে ধারণা দেয়া

আমরা জানি, আমাদের চারপাশের প্রতিটি বস্তুর ভিন্ন ভিন্ন আকার ও রঙ রয়েছে। ছোট্ট ভাইবোনকে রঙের পার্থক্য বুঝতে, রঙ ও আকার চিনতে সহযোগিতা করতে পারে বড় ভাইবোনরা। বিভিন্ন রঙের আঁকা ছবি, দেয়ালের পোস্টার ইত্যাদি দেখিয়ে কোনটা কি রঙ, আকৃতি ছোট ভাইবোনকে চেনাতে পারে বড় ভাইবোনরা।

খেলার সঙ্গীও হতে হবে

খেলা শিশুদের অভিজ্ঞতা বাড়ায়, কৌতূহলী করে তোলে ও আত্মবিশ্বাসী হতে সাহায্য করে। পাজল, বল, কুইজ, লুকোচুরি ইত্যাদি খেলা যেতে পারে ছোট ভাইবোনের সঙ্গে। এতে ছোট ভাইবোনের মাঝে যোগাযোগের দক্ষতা বাড়বে, শেয়ারিং মনোভাব তৈরি হবে এবং তার বুদ্ধি বিকাশেও সাহায্য হবে।

ss

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »