১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ বিকাল ৩:০১
ব্রেকিং নিউজঃ
সাতক্ষীরা হিন্দু নাবালিকা ছাত্রী অপহরণকারী প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ গ্রেফতার চলে গেলেন চিত্রনায়িকা কবরী(মিনা পাল) পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা সর্বদলীয় বৈঠকে ধাপে ধাপে ভোটের পক্ষেই মত ভাড়া না দেওয়ায় বের করে দিলেন বাড়িওয়ালা, ঘরে তুলে দিল পুলিশ এত ঘন ঘন অডিও টেপ ফাঁস হচ্ছে, না ইচ্ছে করে করা হচ্ছে !! শিবালয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে চাঁদা না পেয়ে ছাত্রলীগের তাণ্ডব ইসলাম ধর্ম কবুল না করলে দেশ ছাড়ার হুমকি সিটি স্ক্যান করাতে হাসপাতালে খালেদা জিয়া আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন ভারত সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত এক বর্ণ বিদ্ধেষীর লেখার প্রতিবাদ!

যে মন্দিরে সূর্যাস্তের পর যেতে ভয় পায় মানুষ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৭,
  • 111 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

সারারাত এই মন্দির চত্বরে থাকা মানেই আপনার মৃত্যু অনিবার্য। অভিশপ্ত মন্দির! এমন মন্দির, যেখানে অভিশাপে মানুষ পাথর হয়ে যায়। এমনটাই কথিত আছে ভারতের রাজস্থানের কিরারুতে অবস্থিত একটি মন্দির।

ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে হিন্দুদের বিভিন্ন দেব-দেবীর মন্দির। এই সমস্ত মন্দিরকে ঘিরেই রয়েছে বেশ কিছু অকথিত কাহিনী। যেগুলি কাহিনী হিসেবেই রয়েছে। সত্য কি না সেই বিষয়ে এখনও কোনও প্রমাণ মেলেনি।

তবে, এই সমস্ত মন্দিরকে ঘিরে যা কথিত রয়েছে সেই সমস্ত ঘটনা একেবারে হাড়হিম করা। এই সমস্ত ঘটনার সত্যতা যাচাই করারও কেউ চেষ্টা করেন না। তেমনই একটি মন্দির রয়েছে রাজস্থানে যাকে ঘিরে জড়িয়ে রয়েছে একটি অবিশ্বাস্য কাহিনী। বলা হয়, এই অভিশপ্ত কিরারু মন্দিরে যদি কেউ সারারাত থাকেন তাহলে অভিশাপে পাথর হয়ে যাবে সেই ব্যক্তি।

রাজস্থানের বাঢ়মের জেলায় এই মন্দিরটি অবস্থিত। শহরের নামেই মন্দিরের নামকরণ। তবে, একটি মন্দির নয়। সাতটি মন্দির রয়েছে এই জায়গায়। এই মন্দিরকে ঘিরেই জড়িয়ে রয়েছে এই অবিশ্বাস্য কাহিনী। এই সাতটি মন্দিরের মধ্যে দুটি মন্দিরের অবস্থা একেবারেই ভগ্নপ্রায়। মানুষ পাথরে পরিণত হওয়ার বিষয়টি আদৌ সত্যি কিনা সেটি যাচাই করে দেখারও সাহস দেখান না কেউ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কিরারু মন্দিরটি কিরাডকট নামে পরিচিত। ছয়ের শতকে কিরারের রাজবংশ এখানে রাজত্ব করত। দ্বাদশ শতকে সোমেশ্বর রাজা এই মন্দিরে রাজত্ব করতেন। সেই সময় তুরাস্কস আক্রমণ করে এই শহরে আর সেই সময়ে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় মন্দিরটি। সেই সময়ই এক ঋষি এই মন্দিরে অভিশাপ দিয়েছিলেন।

এই মন্দিরের স্থাপত্যকলার জন্যই এটি রাজস্থানের খাজুরাহো নামে পরিচিত। এই মন্দিরে ঢুকলেই আপনি এক অদ্ভুত নিস্তব্ধতা অনুভব করবেন। যদিও এই মানুষের পাথর হয়ে যাওয়ার যথাযথ কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই। কিন্তু আজও পর্যটকেরা এই মন্দিরে সূর্যাস্তের পরে যেতে ভয় পান। প্রকৃতি সত্যিই বড় বিচিত্র।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »