১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৭:৪৪
ব্রেকিং নিউজঃ
শিবালয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে চাঁদা না পেয়ে ছাত্রলীগের তাণ্ডব ইসলাম ধর্ম কবুল না করলে দেশ ছাড়ার হুমকি সিটি স্ক্যান করাতে হাসপাতালে খালেদা জিয়া আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন ভারত সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত এক বর্ণ বিদ্ধেষীর লেখার প্রতিবাদ! পহেলা বৈশাখেও ফের সুনামগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা বহিরাগত তত্ত্ব’ ভিত্তিক বিজেপি বিরোধিতা ব্যুমেরাং হতে চলেছে !! শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করতে যা খাবেন লকডাউন বিধিনিষেধ কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে: আইজিপি করোনায় ব্যতিক্রমধর্মী পহেলা বৈশাখ উদযাপন করেছি আমরা: গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক সর্বোচ্চ পর্যায়ে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শুক্রবার, জানুয়ারি ১৯, ২০১৮,
  • 100 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

চার দশকে বাংলাদেশ ও ভারত-এই দুই বিশ্বস্ত প্রতিবেশী রাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্কের গভীরতা ও মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে, আর সেই কারণেই ঢাকা ও দিল্লি-উভয়ই খুব ভাল সম্পর্ক উপভোগ করছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে তৃতীয় ‘রাইসিনা ডায়লগ-২০১৮’ এর শেষ দিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন।

এদিন দিল্লির তাজ প্যালেস হোটেলে ‘ম্যানেজিং ডিসরাপটিভ ট্রানজিশনস থ্রু স্ট্রং বাইল্যাটারাল রিলেশনস ফর রিজিওনাল স্টেবিলিটি’ শীর্ষক আলোচনায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার প্রসঙ্গ তুলে ধরে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি জানান, ‘২০০৯ সালে তাঁর (শেখ হাসিনা) নেতৃত্বে বাংলাদেশে ক্ষমতায় আসার পর ৯ বছর ধরে নিরাপত্তা, কানেকটিভিটি, সাংস্কৃতিক মতবিনিময়, বাণিজ্য, বিদ্যুৎ, প্রতিরক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব অগ্রগতি হয়েছে’।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী অভিমত, ‘এই অঞ্চলে শান্তি, স্থিতিশলীতা ও নিরাপত্তা বজায় রাখার ক্ষেত্রে দুই দেশের পারস্পরিক নিরাপত্তা সহযোগিতা, সন্ত্রাসবাদ ও চরমপন্থা দমনে দুই দেশের যৌথ উদ্যোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’।

সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশের কঠোর অবস্থানের কথা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস দমনে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে। কোন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকেই বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করে এমন কোন কাজ করতে দেওয়া হবে না, যা ভারতসহ আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্রের ক্ষেত্রে বিপজ্জনক হতে পারে। গত নয় বছর ধরে কঠোর অবস্থানের মধ্যে দিয়ে আমাদের সরকার প্রতিজ্ঞা রেখে আসছে’। এসময় ভারতের সাথে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের শক্ত ভিত স্থাপনে বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা স্মরণ করেন মাহমুদ আলী।

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা প্রসঙ্গটিও এদিন উত্থাপন করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। মাহমুদ আলীর আশা, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর মধ্যেই এই সঙ্কটের স্থায়ী সমাধান সম্ভব। কয়েক হাজার রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে দুই দিন আগে মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে যে চুক্তি হয়, সে বিষয়টিও এদিন তুলে ধরেন। রোহিঙ্গাদের সুষ্ঠুভাবে রাখাইন প্রদেশে ফেরত পাঠানো নিয়ে মিয়ানমারের ওপর চাপ বজায় রাখতে ভারত ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছেও এদিন আর্জি রাখেন তিনি।

উল্লেখ্য, বুধবারই নয়াদিল্লতে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন মাহমুদ আলী। সেখানেও আলোচনার টেবিলে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক একাধিক বিষয় উঠে আসে। 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »