২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যা ৬:৪৫

সোনারগাঁওয়ে গুপ্তধনের সন্ধানে চাঞ্চল্য

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০১৮,
  • 99 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

 

নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার বারদী ইউনিয়নে মিশ্রিপাড়ায় অবস্থিত হাজার বছরের মঠের ভেতরে গুপ্তধন মনে করে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, ওই এলাকায় হাজার বছর পূর্ব থেকে হিন্দু সম্প্রদায়ের রাজত্ব চলত। তৎকালীন তৈরি মঠের ভেতরে প্রতিদিন শিবের পূজা করে আসছিলেন বর্তমান বসবাসরত ওই এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ।

বাংলাদেশ হিন্দু হ্যারিটেজ ফাউন্ডেশন সোনারগাঁও শাখার আহ্বায়ক নির্মল কুমার সাহা বলেন, গত বৃহস্পতিবার হ্যারিটেজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিশ্রিপাড়ার মঠের সংস্কার কাজ করতে গিয়ে যখন টাইলস বসাতে ফ্লোরের মাটি খুঁড়তে যায় তখন কর্মরত মিস্ত্রির যন্ত্রে শক্ত কিছু স্পর্শ হয়ে ফিরে আসে। মঠের ভেতরে গুপ্তধন পাওয়া গেছে এমন খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শত শত মানুষের ভিড় জমে। প্রথমে বিষয়টি গোপন রাখার চেষ্টা করলেও পরে অত্র এলাকার ইউপি সদস্য দাইয়ান সরকার গুপ্তধন মনে করে বিষয়টি সোনারগাঁও থানা পুলিশের এসআই সাধন বসাককে তার মোবাইলফোনে জানান। এসআই সাধন বসাকের নেতৃত্বে সোনারগাঁও থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। এলাকার শত শত নারী-পুরুষ এবং গণমাধ্যম কর্মীর উপস্থিতিতে মাটি খুঁড়ে বের করা হয় কমপক্ষে ১০০ কেজি ওজনের একটি পাথর খন্ড।

সরেজমিনে জানতে চাইলে এলাকার বয়স্কদের মধ্যে কেউ কেউ বলেন, এই পাথর সাধারণ পাথর নয়, এর নাম কষ্টিপাথর। আবার অনেকের ধারণা, এটা একটি সাধারণ পাথর। এই পাথরের উপর আগের আমলের হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের পূজা-মূর্তি বসিয়ে পূজা করত।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সোনারগাঁও থানা পুলিশের এসআই সাধন বসাক জানান, প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরে পাঠানোর পর পরীক্ষা করলে জানতে পারব আসলে এটা কি পাথর নাকি মূল্যবান রত্ন।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »