২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ১২:০১
ব্রেকিং নিউজঃ
বাংলা মাসীকে চায় না ২ মে আমার কথা মিলিয়ে নেবেন পিকে: স্বপন মজুমদার মুশতাকের মৃত্যু: স্বচ্ছ তদন্তের দাবি জানাল যুক্তরাষ্ট্র রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপি’র পর সিপিএম প্রধান বিরোধী শক্তি হয়ে ওঠার লক্ষ্যে ঘুঁটি সাজাচ্ছে !! আট দফায় বেনজির ভোট পশ্চিম বাংলায়! অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণ করছেন শেখ হাসিনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন কি ‘স্বাভাবিক’ হয়ে উঠল চট্রগ্রামের পটিয়া উপজেলায় প্রায় দেড় শতাধিক সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারকে ভিটে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে নতুন বাইপাস সড়ক করার অপচেষ্টা চলছে। মিনি পাকিস্তানের প্রবক্তা ফিরহাদ হাকিমের বাইকের পিছনে সওয়ার কেন মমতা ব্যানার্জী ? সংক্ষিপ্ত বিশ্ব সংবাদ : ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ দিনে ১০০০ ক্যালরি ঝরাবেন কীভাবে

কীভাবে মাথা থেকে অযথা চিন্তা দূর করবেন?

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮,
  • 85 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

আপনার মাথায় কি সারা দিন অযথা চিন্তা ঘুরপাক খায়? অনেক চেষ্টা করেও চিন্তা দূর করতে পারেন না? কেন এমনটা হয়ে বলুন তো? কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক মাইকেল অ্যান্ডারসন জানাচ্ছেন, একটু চেষ্টা করলেই মাথা থেকে তাড়াতে পারেন অযথা চিন্তা।

৩ নভেম্বর, ২০১৭ নেচার কমিউনিকেশনস জার্নালে অ্যান্ডারসনের গবেষণার ফল প্রকাশিত হয়। ফাংশনাল ম্যাগনেটিক রিজোনেন্স ইমেজিং ও ম্যাগনেটিক রিজোনেন্স স্পেকট্রোস্কোপির সাহায্যে অংশগ্রহণকারীদের অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা পরীক্ষা করেন তিনি। স্পেকট্রোস্কোপির ফলে দেখা যায়, অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা নির্ভর করে একটি নিউরোট্রান্সমিটারের উপর। যা মস্তিষ্কের বিভিন্ন কোষের মধ্যে বার্তা সঞ্চালনে সাহায্য করে। জিএবিএ বা গাবা নামের এই নিউরোট্রান্সমিটার মস্তিষ্কে গ্লুটেমেট ও ডোপেমাইনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

মস্তিষ্কের হিপোক্যাম্পাসে থাকা গাবা-র মাত্রা আমাদের স্মৃতি ও অযথা চিন্তার কারণ। হিপোক্যাম্পাসে গাবা-র মাত্রা যত বেশি হবে অযথা চিন্তা নিয়ন্ত্রণ তত সহজ হবে। অ্যন্ডারসন জানাচ্ছেন, গাবা-র মাত্রা বাড়ানোর কোনও চিকিৎসা নেই। তবে গাবা-র অভাবে নিউরোকেমিক্যালের ভারসাম্য নষ্ট হয়। তাই গাবা-র সঠিক মাত্রা বজায় রাখতে পারলে অযথা চিন্তা দূরে রাখা যায়।

গাবা বাড়ানোর কিছু উপায়

মেডিটেশন: মন শান্ত করার জন্য মেডিটেশন খুবই জরুরি। মেডিটেশন গাবা-র মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। সপ্তাহে ৩-৪ দিন হাঁটা বা দৌড়নোর মতো এক্সারসাইজও গাবা-র মাত্রা বাড়ায়।

যোগাভ্যাস: গাবা-র মাত্রা বাড়াতে মনসংযোগ করা খুব জরুরি। যোগাভ্যাস শ্বাস-প্রশ্বাসের ওপর নিয়ন্ত্রণ বাড়ায়। স্ট্রেস ও উৎকণ্ঠা কমাতে সাহায্য করে।

ডায়েট: সফট ড্রিঙ্ক, প্রসেসড ফুড থেকে দূরে থাকুন। ডায়েটে এমন খাবার রাখুন যাতে গ্লুটেমিক অ্যাসিড রয়েছে। গাবা-র গঠনের মূল গ্লুটেমিক অ্যাসিড। যে খাবারগুলো ডায়েট রাখবেন- কলা, মেটে, ব্রকোলি, ঢেঁকি ছাঁটা চাল, ব্রকোলি, মাছের তেল, ডাল, ওটস, লেবু জাতীয় ফল, আলু, পালং শাক, আমন্ড, আখরোট।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »