৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১২:৩৬
ব্রেকিং নিউজঃ
লোকসভা নির্বাচনে দিদির দল ‘হাফ’ হয়েছিল, এবার ‘সাফ’ হবে: মোদি নন্দীগ্রামের মহাযুদ্ধে শুভেন্দুই যে দলের প্রধান মুখ সেরকম বার্তাই দিলেন মোদী-শাহ’রা !! ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে শ্রীধাম ওড়াকান্দি সহ ২টি শক্তিপীঠ পরিদর্শন করবেন। সোনালী হাতছানিতে উথাল-পাতাল রূপোলী আকাশ !! ফের আর একবার ঐতিহাসিক নাম হয়ে উঠতে চলেছে নন্দীগ্রাম !! উজিরপুরে ঝরে পড়া শিশুদের নিয়ে ভোসড এর উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার অবহিতকরণ সভা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম আর নেই কিছু বিশেষ ফ্যাক্টর বিজেপি’র সম্ভাবনা জোরদার করছে !! ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এক দিনের সফরে আসছেন বৃহস্পতিবার বিজেপি ক্ষমতায় এলে অরাজকতা থাকবে না, বললেন যোগী

৯ দিনেও সন্ধান মেলেনি পাহাড়ি দুই নারী নেত্রীর

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ মঙ্গলবার, মার্চ ২৭, ২০১৮,
  • 90 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

অপহরণের অভিযোগ ওঠার পর কেটে গেছে ৯ দিন। কিন্তু এখনও সন্ধান পাওয়া যায়নি ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সমর্থিত হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রীর। গত ১৮ মার্চ হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দয়া সোনা চাকমাকে দুর্বৃত্তরা অপহরণ করে। সংগঠনের নেতাকর্মীদের অভিযোগ, পুলিশের নাকের ডগায় আসামিরা ঘুরলেও তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না। তবে পুলিশের দাবি, দুর্গম এলাকা হওয়ার কারণে অভিযানে সময় লাগছে। মন্টি ও দয়া চাকমাকে তারা শিগগিরই উদ্ধার করতে পারবেন।

হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেতারা অভিযোগ করেন, গত ১৮ মার্চ সকাল সোয়া ৯টার দিকে সন্ত্রাসীরা খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি সড়ক থেকে কয়েকশ’ গজ দূরে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতা ধর্মসিং চাকমার বাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। পরে দুর্বৃত্তরা ছাত্রদের একটি মেসে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং জঙ্গিগোষ্ঠী বোকো হারামের স্টাইলে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও কেন্দ্রীয় সদস্য দয়াসোনা চাকমাকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে আবাসিকের বৌদ্ধ মন্দিরের পাশ দিয়ে খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি সড়কের পূর্বপাশের জঙ্গলে নিয়ে যায়। এর পর থেকে তাদের আর কোনও খোঁজ নেই। এই ঘটনার জন্য ইউপিডিএফ  থেকে বের হয়ে যাওয়াদের সংগঠন ইউপিডিএফ-(গণতান্ত্রিক) এর সদস্যদের দায়ী করেন তারা।

অপহরণের ঘটনার জড়িত সন্দেহে ইউপিডিএফের (গণতান্ত্রিক) আহ্বায়ক তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মা, জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমাসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন অপহৃত দয়া সোনা চাকমার বাবা বৃষধন চাকমা।

মন্টি চাকমার বড় ভাই সুভাষ চাকমা বলেন, ‘পাহাড়ে নারীরা রাজনীতি করছে, অধিকার আদায়ের প্রতিবাদ করছে। এটা অনেকের সহ্য হচ্ছে না। এজন্যই নারীদের কণ্ঠরোধ করতে গুটিবাজি করা হয়েছে। আমার বোন অপহৃত হওয়ার পর থেকে বাবা-মায়ের শরীরের অবস্থাও ভালো নেই। সারাদিন কান্নাকাটি করছেন।’

হিল উইমেন্স ফেডারেশনের রাঙামাটি জেলার সহ-সভাপতি রূপসী চাকমা বলেন, ‘এখনও মন্টি ও দয়া সোনা চাকমার কোনও খবর পাচ্ছি না আমরা। মুখোশ বাহিনী (ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক) তাদের তুলে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসী কায়দায়। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হলেও এখনও উদ্ধারের কোনও প্রক্রিয়া দেখা যাচ্ছে না।’

ইউপিডিএফ এর সংগঠক নিরন চাকমা বলেন, ‘তাদের ফিরে পাওয়া নিয়েও আমাদের আশা দিনকে দিন ক্ষীণ হয়ে আসছে। অপহৃত দুই নেত্রীকে উদ্ধারে পুলিশ কোনও ভূমিকা পালন করছে না। এমনকি দুর্বৃত্তরা মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিলেও অপহৃতদের পরিবারের সদস্যদের পুলিশের পক্ষ থেকে কোনও নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে না।’

রাঙামাটি কোতোয়ালি থানার অফির্সাস ইনচার্জ (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া বলেন, ‘মামলার আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। একই সঙ্গে দুই নেত্রীর সন্ধানে উদ্ধার তৎপরতা চলছে। কিন্তু দুর্গম এলাকা হওয়ায় অভিযান চালাতে সময় লাগছে। আশা করছি, দ্রুততম সময়ের মধ্যে মন্টি ও দয়া চাকমাকে উদ্ধারে আমরা সক্ষম হবো।’

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »