১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ২:৪৮
ব্রেকিং নিউজঃ

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির ভোট বাড়ছে

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, এপ্রিল ১৮, ২০১৮,
  • 56 সংবাদটি পঠিক হয়েছে
 
 
পশ্চিমবঙ্গের পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে এখনো উত্তপ্ত রয়েছে গোটা রাজ্য। মঙ্গলবার বেলা তিনটা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ সময় দিয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন।

এর আগে অবশ্য মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল সোমবার। কিন্তু সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশন এক দিনের জন্য বাড়িয়ে দিয়েছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময়। তাই ২ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে আজ ১০ এপ্রিল মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে। নির্বাচন হচ্ছে আগামী ১, ৩ ও ৫ মে।

রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রে বলা হয়েছে, এবার এই রাজ্যে গ্রাম পঞ্চায়েতের ৪৮ হাজার ৬৫০টি আসন, পঞ্চায়েত সমিতির ৯ হাজার ২১৭টি আসন এবং জেলা পরিষদের ৮২৫টি আসনে নির্বাচন হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গের সর্বশেষ পঞ্চায়েত নির্বাচন হয়েছিল ২০১৩ সালে। সর্বাধিক আসনে জিতেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। এবার সেই পঞ্চায়েত নির্বাচনে ফল কী দাঁড়াতে পারে, তা নিয়ে এবিপি-আনন্দ ও সি-ভোটার একটি জনমত সমীক্ষা চালিয়ে বলেছে, ২০১৩ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের পাওয়া ৪৪ শতাংশ ভোট এবার কমে দাঁড়াতে পারে ৩৫ শতাংশে। আর গত নির্বাচনে বিজেপির পাওয়া ৩ শতাংশ ভোট এবার বেড়ে দাঁড়াতে পারে ২৪ শতাংশে। অর্থাৎ বিজেপির ২১ শতাংশ ভোট বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছে এই সমীক্ষা। অন্যদিকে, গত নির্বাচনে বাম দল ৩৯ শতাংশ ভোট পেলেও এবার সে হার কমে ১৪ শতাংশে নেমে আসতে পারে। আর কংগ্রেসের ১৩ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়াতে পারে ৮ শতাংশে। সমীক্ষায় এ কথাও বলা হয়েছে, এবার জেলা পরিষদে তৃণমূলের বাড়তে পারে মাত্র একটি আসন। গত নির্বাচনে তৃণমূল পেয়েছিল ৫৩১। এবার বেড়ে হতে পারে ৫৩২। জেলা পরিষদে রয়েছে ৮২৫টি আসন।

অন্যদিকে, বিজেপির গত নির্বাচনে জেলা পরিষদের একটি আসন না জুটলেও এবার সেখানে জুটতে পারে ১৪৪টি আসন। সংবাদপত্রে  মঙ্গলবার সেই সমীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

আবার সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ৬৬ শতাংশ ভোটার দলবদল করিয়ে জেলা পরিষদ বা পঞ্চায়েত দখল করা সমর্থন করছেন না। ৪৩ শতাংশ উত্তরদাতা বা ভোটার বলেছেন, বিজেপির উত্থান পরোক্ষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সাহায্য করছে। আর ৪৬ শতাংশ বলেছেন, না, বিজেপির উত্থান মমতাকে সাহায্য করছে না। তৃণমূলের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ সমর্থন করেছেন ৫৯ শতাংশ ভোটার বা উত্তরদাতা। আর রামনবমী-হনুমান জয়ন্তীর মিছিল বিজেপিকে লাভবান করেছে—এমনটা মনে করছেন ৪৫ শতাংশ উত্তর দাতা।

সমীক্ষায় বলা হয়েছে, এবার নির্দলীয় প্রার্থীদের ভোট বেড়ে দাঁড়াতে পারে ২০ শতাংশ। গত নির্বাচনে নির্দলরা পেয়েছিল মাত্র ১ শতাংশ ভোট। এবার এই নির্দলীয় প্রার্থীদের মধ্যে বেশির ভাগই তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ প্রার্থী।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »