১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৭:৫৯
ব্রেকিং নিউজঃ
শিবালয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে চাঁদা না পেয়ে ছাত্রলীগের তাণ্ডব ইসলাম ধর্ম কবুল না করলে দেশ ছাড়ার হুমকি সিটি স্ক্যান করাতে হাসপাতালে খালেদা জিয়া আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন ভারত সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত এক বর্ণ বিদ্ধেষীর লেখার প্রতিবাদ! পহেলা বৈশাখেও ফের সুনামগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা বহিরাগত তত্ত্ব’ ভিত্তিক বিজেপি বিরোধিতা ব্যুমেরাং হতে চলেছে !! শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করতে যা খাবেন লকডাউন বিধিনিষেধ কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে: আইজিপি করোনায় ব্যতিক্রমধর্মী পহেলা বৈশাখ উদযাপন করেছি আমরা: গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে তদন্ত কমিটির টালবাহানা : বেড়িয়ে আসছে থলের বিড়াল

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, মে ১২, ২০১৮,
  • 63 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন হাসিনুর রহমান এবং অর্থ ও হিসাব দপ্তরের সহকারী পরিচালক বরুন কুমার দে’র মধ্যে গত ১৯ এপ্রিল সংঘটিত অনভিপ্রেত ঘটনায় ড.মুহসিন উদ্দিন -কে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। গত ৬/৫/১৮ তারিখ ছিলো এই কমিটির প্রতিবেদন জমা দেয়ার শেষ দিন।কিন্ত কমিটি সময় চেয়ে আবেদন করলে ১০/৫/১৮ তারিখ পর্যন্ত তাদের সময় বর্ধিত করা হয়। ১০/৫/১৮ তারিখেও তারা প্রতিবেদন জমা না দিয়ে আবারো সময় বৃদ্ধির আবেদন করেন। এমন প্রেক্ষিতে বেড়িয়ে এসেছে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বিশ্বস্থসূত্রে জানা যায় যে,তদন্ত কমিটির সাক্ষ্য-প্রমানে হাসিনুর রহমান কতৃক বরুন কুমার দে’র বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।বরং হাসিনুর রহমানের বিরুদ্ধে বরুন কুমার দে যে সকল অভিযোগ এনেছেন তার সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি। বিশেষ করে একজন ডিন হওয়া সত্ত্বেও হাসিনুর রহমান অন্য দপ্তরের একজন সিনিয়র কর্মকর্তাকে তার নিজের রুমে ডেকে নিতে পারেননা। কিন্তু তিনি সেটাই করেছেন। শুধু তাই নয়, অন্য বিভাগের দুজন শিক্ষকের সামনে তিনি বরুন কুমার দে কে অশালীন ভাষায় গালমন্দ করেছেন। এতে স্পষ্টতই দোষী সাব্যস্ত হচ্ছেন হাসিনুর রহমান।কিন্তু তাকে রক্ষা করে বরুন দে কে ফাসানোর জন্য তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে টালবাহানা চলছে।
সূত্রমতে হাসিনুর রহমান, হাফিজ আশরাফুল,শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সহ অনেক শিক্ষকের অনৈতিক বিল ভাউচারে বিভিন্ন সময়ে অডিট অফিসার হিসেবে আপত্তি দিয়েছিলেন বরুন কুমার দে।বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় বিগতদিনে হাসিনুর রহমানের ভুয়া টিএ ডিএ বিলে, কোস্টাল সায়েন্স বিভাগের চেয়ারম্যান হাফিজ আশরাফুলের অনুমোদনবিহীন অতিরিক্ত ভ্রমণ বিলে,শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফরের ১৫ দিনের অস্বাভাবিক ভুয়া টিএ বিলে,রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন কতৃক চায়ের দোকানের বিলকে ঘষামাজা করে কাঠের দোকানের বিল বানানোর জালিয়াতি অডিট অফিসার হিসেবে বরুন কুমার দে হাতেনাতে ধরে ফেলেছেন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষর নির্দেশে নিয়ম ও বিধি অনুযায়ী তিনি অডিট আপত্তি দিয়েছেন। এছাড়াও এমন অনেক প্রভাবশালী শিক্ষকের নিয়ম বহির্ভূত এবং অনৈতিক বিল ভাউচারে বরুন দে আপত্তি দিয়েছিলেন।এমনকি বর্তমান তদন্ত কমিটির সদস্য ড.মুহসিন উদ্দিন এবং রাহাত হোসেন ফয়সালের নিয়মবহির্ভূত ইনক্রিমেন্টেও বরুন দে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে অডিট আপত্তি দিয়েছিলেন।এইসব কারনেই উল্লেখিত শিক্ষকরা বরুন দে’র উপর আগে থেকেই খেপে আছেন।এইসব ক্ষোভের কারনেই গত ১৯ এপ্রিল তার সাথে অশোভন আচরণ করা হয়। তদন্ত কমিটির সদস্যবৃন্দও বিগতদিনে বরুন কুমারের অডিট আপত্তির কারনে স্বার্থ বঞ্চিত হয়েছেন বিধায় তারাও চাচ্ছেন এই সুযোগে বরুন কুমার কে শায়েস্তা করতে।এই কারনেই তারা চাচ্ছেন দফায় দফায় সময় বাড়িয়ে নিজেদের ইচ্ছেমত এবং হাসিনুর,হাফিজ আশরাফুল, আলাউদ্দিন, আবু জাফরদের নির্দেশিত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে।এই নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক,কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »