১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ২:০২
ব্রেকিং নিউজঃ
পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা সর্বদলীয় বৈঠকে ধাপে ধাপে ভোটের পক্ষেই মত ভাড়া না দেওয়ায় বের করে দিলেন বাড়িওয়ালা, ঘরে তুলে দিল পুলিশ এত ঘন ঘন অডিও টেপ ফাঁস হচ্ছে, না ইচ্ছে করে করা হচ্ছে !! শিবালয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে চাঁদা না পেয়ে ছাত্রলীগের তাণ্ডব ইসলাম ধর্ম কবুল না করলে দেশ ছাড়ার হুমকি সিটি স্ক্যান করাতে হাসপাতালে খালেদা জিয়া আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন ভারত সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত এক বর্ণ বিদ্ধেষীর লেখার প্রতিবাদ! পহেলা বৈশাখেও ফের সুনামগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা বহিরাগত তত্ত্ব’ ভিত্তিক বিজেপি বিরোধিতা ব্যুমেরাং হতে চলেছে !!

চট্টগ্রামে ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে পদপিষ্টে নিহত ১১

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, মে ১৪, ২০১৮,
  • 115 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় বিতরণ করা ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে অতিরিক্ত ভিড়ের চাপে ১১ নারীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও আহত হয়েছেন অর্ধ শতাধিক।

উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের গাতিয়াডাঙ্গায় একটি মাদ্রাসার মাঠে সোমবার দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে, কেএসআরএম ইস্পাত কারখানার মালিকপক্ষ প্রতিবছর রোজার আগে স্থানীয় দুস্থ ও অসহায় পরিবারের মধ্যে ইফতারি তৈরির নানা সামগ্রী বিতরণ করে।

এবারো আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে নলুয়ার ওই মাদ্রাসার মাঠে ইফতার সমাগ্রী বিতরণের ব্যবস্থা বরে কেএসআরএম। আর এসব সামগ্রী নিতে সকাল থেকে প্রায় অন্তত ২০ হাজার লোক জড়ো হয় সেখানে। এর একপর্যায়ে অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে আর গরমের মধ্যে চাপাচাপিতে ১১ নারী মারা যান।

সাতকানিয়া উপজেলার অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, কেএসআরএমের পক্ষে সকাল আটটা থেকে গরিব ও অসহায় মানুষের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছিল। বিতরণের এক পর্যায়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যে পড়ে পদদলিত হয়ে ১১ নারী নিহত হন।

কেএসআরএমের একজন কর্মকর্তা মো. রফিক বলেন, ‘আমাদের কোম্পানির পক্ষ থেকে সকালে দুঃস্থ-গরিবদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছিল। সে সময় ভিড়ের মধ্যে পড়ে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।’

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের একটি সূত্র ভিড়ের মধ্যে অতিরিক্ত গরমে হিট স্ট্রোকে তাদের মৃত্যু হতে পারে বলে জানিয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে একই ঘটনায় পদদলিত হয়ে ৭ জন নিহত হয়েছিল। ওই ঘটনার পর থেকে কয়েক বছর ইফতার সামগ্রী বিতরণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এরপর কার্ড সিস্টেম করে আবার গরিবদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছিল। কিন্তু এবার কার্ড সিস্টেম না করায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়ে পদদলনের এই ঘটনা ঘটল।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »