৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১২:২৫
ব্রেকিং নিউজঃ
লোকসভা নির্বাচনে দিদির দল ‘হাফ’ হয়েছিল, এবার ‘সাফ’ হবে: মোদি নন্দীগ্রামের মহাযুদ্ধে শুভেন্দুই যে দলের প্রধান মুখ সেরকম বার্তাই দিলেন মোদী-শাহ’রা !! ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে শ্রীধাম ওড়াকান্দি সহ ২টি শক্তিপীঠ পরিদর্শন করবেন। সোনালী হাতছানিতে উথাল-পাতাল রূপোলী আকাশ !! ফের আর একবার ঐতিহাসিক নাম হয়ে উঠতে চলেছে নন্দীগ্রাম !! উজিরপুরে ঝরে পড়া শিশুদের নিয়ে ভোসড এর উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার অবহিতকরণ সভা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম আর নেই কিছু বিশেষ ফ্যাক্টর বিজেপি’র সম্ভাবনা জোরদার করছে !! ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এক দিনের সফরে আসছেন বৃহস্পতিবার বিজেপি ক্ষমতায় এলে অরাজকতা থাকবে না, বললেন যোগী

হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে সংখ্যালঘু পরিবারের সম্পত্তি দখল

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, জুন ৯, ২০১৮,
  • 38 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

ময়মনসিংহ নগরের মহারাজা রোড এলাকায় আইনের তোয়াক্কা না করে সংখ্যালঘু পরিবারের সম্পত্তি দখল করার অভিযোগ উঠেছে। হাইকোর্ট ‌বিচারাধীন জ‌মি‌তে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে নির্দেশ দিয়েছিল বলে দা‌বি করেছেন বিপ্লব কুমার গুহ।

তিনি জানান, উত্তরাধীকার সূত্রে পাওয়া সম্পত্তি থেকে তাদেরকে অবৈধ দলিল বলে, ভয় ভীতি দেখিয়ে, কয়েক দফা হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে ১১ নম্বর মহারাজা রোডের পুরো জায়গা জবর দখল করে এখন ৯ নম্বর মহারাজা রোডের বসতবা‌ড়ি দখলের চেষ্টা চালা‌চ্ছে আব্দুল্লাহ আল মামুন ও তার সন্ত্রাসী গং।

এছাড়াও সংখ্যালঘু পরিবারটিকে ফো‌নে হুম‌কি এবং দ্রুত বা‌ড়ি না ছাড়‌লে শ‌ক্তি প্র‌য়োগের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ২৮ দিন বিদ্যুৎ সং‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন রে‌খে অমান‌বিক প‌রি‌স্থি‌তির সৃ‌ষ্টি করেছিল অভিযুক্তরা।

Image may contain: house and outdoor

অনুসন্ধানে জানা যায়, ময়মনসিংহ শহরে প্রতারক চক্র ঠিক একি ভাবে আরো জমি আত্মসাৎ করেছে। এমনকি তারা সরকারী সম্পত্তিও আত্মসাৎ করছে। ভূমি দস্যুদের প্রতারণার এই নতুন কৌশলের কথা শহরের অনেকেই জানেন কিন্তু প্রতারক চক্র শক্তিশালী হওয়ায় তারা মুখ খুলতে চান না।

পূর্বেও ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে পরিবারের সদস্য বিপ্লব কুমার গুহ মানিক জানান, মহারাজা রোডের ৯ ও ১১ নং হোল্ডিংয়ে পৈতৃক সূত্রে তারা ১২ দশমিক ৩২ শতাংশ জমি পেয়েছেন। তার প্রয়াত বাবা শিশির কুমার গুহ ১৯৬২ সালে স্ত্রীকে দুই আনা, মেয়েকে দুই আনা ও তিন ছেলেকে যথাক্রমে চার আনা করে সম্পত্তি উইল করেন। ১৯৬৫ সালে শিশির কুমার গুহ মারা যাওয়ার পর তার তিন ছেলের মধ্যে সুখময় গুহ ১৯৭৫ সালে ভারতে চলে যান। সুখময় গুহ এরপর ১৯৯৮ সালে দেশে ফিরে নিজ ছোট ভাই বিপ্লব কুমার গুহ মানিককে তার অংশের (সুখময় গুহ) জমি দেখভাল করার জন্য পাওয়ার অব অ্যাটর্নি করেন। এরপর সুখময় গুহ গোপনে আবার ২০১৭ সালে দেশে ফিরে তার নিজের জমিসহ (প্রায় ৩ শতাংশ, যা চার আনা হিসেবে পাওয়া গিয়েছিল) অন্য ভাইবোন ও মায়ের সব জমির পাওয়ার অব অ্যাটর্নি করে দিয়ে যান আবদুল্লাহ আল মামুন নামে এক ব্যক্তিকে, যা আইনের দৃষ্টিতে জালিয়াতি এবং অবৈধ। এ অবৈধ পাওয়ার অব অ্যাটর্নির সূত্র ধরেই সম্প্রতি আবদুল্লাহ আল মামুন জমির প্রকৃত মালিক বিপ্লব কুমার গুহ মানিক, সুবিনয় গুহ, মীরা রানী গুহ- এ তিন পরিবারকে উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এমনকি কিছুদিন আগে জমি দখলের চেষ্টায় আলোচিত জমিতে ভাংচুরের ঘটনাও ঘটিয়েছে। বর্তমানে পরিবারটি আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করছে। 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »