২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১০:০৯
ব্রেকিং নিউজঃ
জুলাইয়ের আগে করোনার টিকা রপ্তানি অনিশ্চিত : সেরাম ইনস্টিটিউট পশ্চিমবঙ্গ ষষ্ঠ দফার ভোট মোটামুটি শান্তিপূর্ণ, সফর বাতিল মোদির এত মৃত্যু এত শূন্যতা আগামীকালের ষষ্ঠ দফার ৪৩-টি আসনে কোন দল এগিয়ে !! বাংলাদেশের ভোটার হয়ে কি ভাবে ভারতের বিধান সভায় নির্বাচন করছেন আলো রানী সরকার ? করোনায় মারা গেলেন কবি শঙ্খ ঘোষ বিজেপি মন্ত্রীসভার প্রধান মুখ হতে পারেন যাঁরা !! ঠিকাদারকে টাকা পরিশোধ না করায় থমকে গেছে উজিরপুরে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মান কাজ ।। ধুলো বালীতে ফ্যাকাশে হয়ে আছে ম্যূরাল।। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মিদের ক্ষোভ।। ফিরহাদের ভিডিয়ো নিয়ে কমিশনে বিজেপি, তৃণমূল প্রার্থীকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানাল গেরুয়া শিবির পশ্চিমবঙ্গে এক দিনে মোদির ৪ সভা

আবারও নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুর, নারীসহ আহত ৯

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, জুন ১৩, ২০১৮,
  • 49 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

নৌকায় গরু তুলে নদী পার হওয়া নিয়ে কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে সনাতন ধর্মাবলম্বী জেলে সম্প্রদায়ের ৫টি বাড়িতে ভাংচুর করা হয়েছে। এসময় ইটের আঘাতে অন্তত ৯ জন নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনা ঘটে। হামলার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকালে নাসিরনগর পশ্চিমপাড়ার মো. রফিক মিয়া মেদির হাওরের চরে গরু নিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় বিলের পাশে লঙ্গর নদী পার হওয়ার জন্য জেলে নরেশ দাসের কাছে তার নৌকাটি চান। এসময় নরেশ দাস গরুসহ তার নৌকা দিয়ে পারাপার করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে জেলে সস্প্রদায়কে কটূক্তি করে গালি দেন রফিক। নরেশ ক্ষুব্ধ হয়ে তার গ্রাম গাঙ্কুল পাড়ার (জেলেপাড়া) লোকজনকে খবর দেন। এসময় জেলেপাড়ার লোকজন এগিয়ে এসে মো. রফিক মিয়াকে ঘিরে ধরে। তারা গালি দেওয়ার কারণ জানতে চান রফিকের কাছে। এসময় রফিক মিয়া ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া দেখায়। পরে রফিকের পক্ষে আয়েত আলীর নেতৃত্বে একদল লোক দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে এসে গাঙ্কুল পাড়ায়(জেলেপাড়ায়) হামলা চালায় এবং বাড়িঘর ভাংচুর করে।

ঘটনা সম্পর্কে প্রত্যক্ষদর্শী প্রদীপ দাস এবং পরিমল দাস জানান, হামলাকারীদের  সবার হাতে টেঁটা, দা, রড এবং ছোড়া ছিল। তারা আরও জানান, হামলাকারীরা সংঘবদ্ধ হয়ে গাঙ্কুল পাড়ার সুরেন্দ্র দাস, লাল মোহন দাস, জান্টু দাস, মন্টুদাস এবং সোনার চাঁন দাসের বাড়িঘরে ভাঙচুর চালায়। হামলার সময় ইটের আঘাতে মনি রানী দাস, অঞ্জনা দাস, বিপুলা রানী দাস, মালতি রানীদাস, সমীর দাস, জিতু দাস, অপিরা রানী দাস, দুলু দাস, জান্টু দাস আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় মনিরানী দাসকে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ ইকবাল হোসেইন ও নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবু জাফর। তারা জানান, হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »