১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ২:৪৯

জবাব দেব, অল্প কিছুদিন অপেক্ষা করেন : মওদুদ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, জুন ২০, ২০১৮,
  • 53 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, ‘সরকার চায় না বিএনপির কেউ মাঠে নামুক। তাদের পলিসি হলো বিএনপিকে রাস্তায় নামতে না দেয়া, মাঠে নামতে না দেয়া। কিন্তু এর জবাব ইনশাআল্লাহ আমরা দেব। অল্প কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাবন্দি অবস্থায় আছেন, আপনারা সবাই তা জানেন। আমাদের কাছে এখন তিনটি বিষয় মুখ্য। প্রথমত, আমাদের নেত্রীকে মুক্ত করা। প্রয়োজনে যে আন্দোলন কর্মসূচি এতদিনে আমরা দিয়ে এসেছি আমাদের তা পরিবর্তন করতে হবে। এমন কর্মসূচি দিতে হবে, যে কর্মসূচি কার্যকর কর্মসূচি হবে। এর মাধ্যমে আমরা তাকে মুক্ত করে আনতে পারব।’

‘দ্বিতীয়টি হলো, আমরা জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করব। যাতে একটা জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টি হয় এই সরকারের বিরুদ্ধে, স্বৈরাচার সরকারের বিরুদ্ধে। তারপর আমরা যদি গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পারি, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে পারি, মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে আনতে পারি, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনতে পারি, সুশাসন ফিরিয়ে আনতে পারি; গত চার/পাঁচ বছর যেগুলোর অনুপস্থিতি আমরা লক্ষ্য করছি, স্বৈরাচার সরকারের যে আচরণ সেটি আমরা পরিলক্ষিত করছি- এসবের হাত থেকে আমরা দেশবাসীকে মুক্ত করতে পারব।’

‘তৃতীয়ত, আমাদের লক্ষ্য হলো নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ এমন একটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করা, যে নির্বাচনে যে সরকার থাকবে সেই সরাকরের কোনো দলীয় স্বার্থ থাকবে না- এমন একটা পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে যাতে করে দেশের সকল নাগরিক বিনা ভয়ে নিজের ইচ্ছা মতো ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন এবং তাদের কেউ বাধা দেবে না। তাদের ভোটের ব্যালট পেপার কেউ কেড়ে নেবে না। তারা নিজেরা নিজের মতো যাকে খুশি ভোট দেবেন। সেই পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।’

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘এ জন্য আমরা সকলে আন্দোলনের কথা বলি, নোয়াখালীবাসীর পক্ষ থেকে আজকে প্রত্যয় ঘোষণা যে, আমরাও সারাদেশে এমন একটা আন্দোলন সৃষ্টি করব; শুধু শান্তিপূর্ণ নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে পৃথিবীর কোথাও স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটানো সম্ভবপর হয়নি, সুতরাং এ দেশেও সেটা সম্ভব হবে না। এ উপলব্ধি থেকে উপযুক্ত সময়ে উপযুক্ত কর্মসূচি দেয়া হবে এবং সেই কর্মসূচি সফল হবে।’

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মওদুদ আহমদ। ঈদের দিন নোয়াখালীর নিজ বাড়িতে পুলিশ কর্তৃক অবরুদ্ধ করে রাখার বিষয়ে প্রতিবাদ জানাতে বৃহত্তর নোয়াখালী অঞ্চলের কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতাদের পক্ষ থেকে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদের পরিচালনায় সংবাদ সম্মেলনে বৃহত্তর নোয়াখালীর সাবেক সংসদ সদস্য বরকতউল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, জয়নুল আবদিন ফারুক, আবুল খায়ের ভুঁইয়া, মাহবুব উদ্দিন খোকন, এ বি এম আশারাফ উদ্দিন নিজান, রেহানা আখতার রানু, নাজিম উদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

ঈদের দিন দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে না দেয়া, বড় মসজিদে ঈদের জামাত পড়তে না দেয়ার ঘটনা তুলে ধরে মওদুদ আহমদ বলেন, ‘আমাকে কোনো ইফতার পার্টিতে যেতে দেয়া হয়নি, সব ইফতার পার্টি পুলিশ নিষিদ্ধ করে দিয়েছিল। পুলিশ আমাকে বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। আমার বাড়ির সামনে পুলিশ একটি ট্রাক আড়াআড়ি করে রেখে দিয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘আজ ওবায়দুল কাদেরের পায়ের নিচে মাটি নেই। তিনি এখন মিথ্যা কথা বলছেন। ঈদের দিনের ঘটনার পেছনে ওবায়দুল কাদেরই দায়ী। পুলিশই আমাকে বলেছে যে, স্যার আমাদের কোনো দোষ দিয়েন না। আমরা ওপরের হুকুম পালন করছি। ওই ঘটনা যে তারা ঘটিয়েছেন এটা শুধু আমরা নই, বৃহত্তর নোয়াখালীর সাধারণ মানুষেরও বক্তব্য। তারই (ওবায়দুল কাদের) নির্দেশে এসব করা হয়েছে।’

আন্দোলন কর্মসূচির ধরন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের এ নেতা বলেন, ‘যে ধরনের আন্দোলনে অতীতের স্বৈরাচার সরকারের পতন হয়েছিল; ১৯৬৯ সালে, ১৯৯০ সালে, একই ধরনের আন্দোলনই বাংলাদেশে হবে।’

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »