৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ বিকাল ৩:৪৪
ব্রেকিং নিউজঃ
‘অনুপ ভট্টাচার্যের অবদান মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে’ বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট এর পক্ষ থেকে ঢাকায় মানববন্ধও ও বিক্ষোভ সমাবেশ। বনগাঁ দক্ষিনের বিধায়ক স্বপন মজুমদারের করা হুশিয়ারি.. বিজেপির ঘরের শত্রু মীরজাফর কে ? শেখ হাসিনা মানবতার মা এবং বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী হিংসা বন্ধ না হলে আমাদের কর্মীরা চুড়ি পরে বসে থাকবে না, তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি শান্তনু ঠাকুরের পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফল বেরোনোর পর থেকে চলছে তৃনমূলের হামলা লুট আগুন ধর্ষন হত্যা । পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃনমূল কি ম্যজিকে জিতলো !! বিজেপির হারের ৫ কারণ নির্বাচনে জিতলেন স্বপন মজুমদার অভিনন্দন বাংলাদেশ আইবিএফের।

নীলফামারীতে জমি দখলের জন্য সংখ্যালঘু পরিবারের ওপর হামলা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, জুন ২৫, ২০১৮,
  • 107 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

 

নীলফামারীর জলঢাকায় জমি সংক্রান্ত ঘটনার জের ধরে এক সংখ্যালঘু পরিবারের ওপর হামলা চালিয়েছেন সন্ত্রাসীরা। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

সংঘর্ষে ৩ জন গুরুতর আহত হলে তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে আহত ৩ জনের অবস্থা আশঙ্খাজনক দেখে তাৎক্ষনিক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হস্তান্তর করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

আহতরা হলেন, উপজেলার সিংড়িয়া শৌলমারী মাঝাপাড়ার মৃত তুলা রাম বর্মনের ছেলে অব: প্রাপ্ত হেলথ ইন্সপেক্টর জিতেন্দ্র নাথ বর্মা (৬৮), ছেলে জলঢাকা পৌরসভার স্যানিটারী ইন্সপেক্টর হৃষিকেশ রাজবংশী (৩২), ছেলে ঢাকা হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজের শেষ বর্ষের অধ্যায়নরত নিরঞ্জন রাজবংশী (২২)। অন্যান্য আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

ঘটনার বিবরণে প্রকাশ, উপজেলার শৌলমারী সিংড়িয়ার মাঝাপাড়া এলাকার প্রভাবশালী দস্যু আফছার ও আজগারের জমি বিগত ১৫ বছর আগে ক্রয় করে একই এলাকার তুলা রাম রায়ের ছেলে জিতেন্দ্র নাথ বর্মন। ক্রয়কৃত জমিতে দীর্ঘদিন থেকে চাষাবাদ ও ভোগদখল করে আসছে বর্মা পরিবার। ওই জমি নিজের দাবী করে বিক্রেতারা আবারও পূর্ণ দখলের চেষ্টা চালায়। এরই সূত্র ধরে, শনিবার সকালে হুমকী প্রদান করলে সংখ্যালঘু পরিবারটি বিষয়টি থানায় অবহিত করে। পরে দ্বিজেন্দ্রের চাষাকৃত জমিতে প্রভাবশালীরা দো-গাছি (ধানের চারা) রোপন করতে গেলে বাধা প্রদান করে। এক পর্যায়ে উৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ৩ জনকে কুপিয়ে জখম করে।

ঘটনাটির বিষয়টি জানতে অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি অস্বীকার করে। এ বিষয়ে কাউন্সিলর রনজিত কুমার রায় বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এরা এ হামলা চালিয়েছে।

জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান, ঘটনা জানতে পেরে তাৎক্ষনিক ফোর্স পাঠিয়ে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি পূর্বে জানা থাকলে এমন ঘটনা হয়ত হতো না।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »