১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১:৪৫

খাশোগি হত্যায় ট্রাম্পের প্রতিক্রিয়া তদন্ত করবে ডেমোক্র্যাটরা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৮,
  • 65 সংবাদটি পঠিক হয়েছে


সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিক্রিয়া খতিয়ে দেখবে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটের গোয়েন্দা কমিটি। যুক্তরাষ্ট্রসৌদি আরবের সম্পর্ক গভীরভাবে খতিয়ে দেখার অংশ হিসেবেই ট্রাম্পের প্রতিক্রিয়া তদন্ত করা হবে। শুক্রবার এই তথ্য জানিয়েছেন জানুয়ারিতে এই গোয়েন্দা কমিটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাওয়া ক্যালিফোর্নিয়ার ডেমোক্র্যাট সদস্য অ্যাডাম স্কিফ। ওয়াশিংটন পোস্টকে অ্যাডাম স্কিফ বলেন, সৌদি আরবের সঙ্গে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত বাণিজ্য সম্পর্ক মার্কিন নীতিকে প্রভাবিত করছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে। তবে এই বিষয়ে মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেয়নি হোয়াইট হাউস।খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে অন্যতম মার্কিন মিত্র সৌদি আরবের পক্ষে নেওয়া অবস্থান ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ট্রাম্প বারবার তাদের সঙ্গে স্বাক্ষরিত অস্ত্র চুক্তি ও ইরান প্রশ্নে তাদের কৌশলগত অবস্থানের কথা বলে আসছেন। নিজের শীর্ষ সমালোচক স্কিফকে নিয়মিত আক্রমণ করে থাকেন ট্রাম্প। চলতি মাসে এক টুইট বার্তায় এই কংগ্রেসম্যানকে তিনি ‘লিটল অ্যাডাম স্কিফ’ বলে সম্মোধন করেছিলেন। জবাবে স্কিফ লিখেছিলেন, এটা ভালো ছিলো প্রেসিডেন্ট।সিনেটের গোয়েন্দা কমিটির শীর্ষ ডেমোক্র্যাট সদস্য অ্যাডাম স্কিফ। চলতি মাসের কংগ্রেসনির্বাচনে ডেমোক্র্যাটদের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ-এ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের পর আগামী জানুয়ারিতে কমিটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার কথা রয়েছে তার। এর মাধ্যমে ট্রাম্প ও তার প্রশাসনের ওপর নজরদারি চালাতে পারবেন ডেমোক্র্যাট সদস্যরা। পাঠাতে পারবেন সমন বা স্থগিত পারবেন শুনানি।অ্যাডাম স্কিফ ওয়াশিংটন পোস্টকে জানান, তারা ইয়েমেন যুদ্ধ, সৌদি রাজ পরিবারের স্থিতিশীলতা এবং সমালোচক ও সংবাদমাধ্যমের ওপর রাজতন্ত্রের আচরণ খতিয়ে দেখবেন। তিনি বলেন, নিশ্চিয়ই আমরা খাশোগি হত্যাকাণ্ডে আরও তদন্ত করবো। আমরা নিশ্চয়ই পরীক্ষা করে দেখতে চাইবো এই হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো কতটুকু জানে।সম্প্রতি সরাসরি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশে খাশোগি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে সিআইএ’র এমন ধারণা উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। সৌদি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করা সাংবাদিক জামাল খাশোগি গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তানবুলে নিজ দেশের কনস্যুলেটে খুন হন। সৌদি সরকারের সমালোচক ওই সাংবাদিক হত্যাকাণ্ড নিয়ে গত বৃহস্পতিবারও নিজের সন্দেহের কথা বলেছেন ট্রাম্প। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, সিআইএ কোনও সিদ্ধান্তে আসেনি। তাদের অনুভবের নির্দিষ্ট উপায় রয়েছে। তিনি বলেন, সৌদি যুবরাজ তীব্রভাবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।অ্যাডাম স্কিফ বলেন, তার প্যানেল সিআইএ’র অনুসন্ধান পরীক্ষা করে দেখবে। এছাড়া সৌদি আরবের সঙ্গে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আর্থিক সম্পর্ক প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার প্রতিক্রিয়ায় ভূমিকা রেখেছে কিনা তাও পরীক্ষা করে দেখবেন তারা। তিনি বলেন, এই ঘটনায় সম্ভাব্য আর্থিক স্বার্থ সংঘাত ও সুবিধা লাভের বিষয় রয়েছে যেগুলোতে কংগ্রেসের শেষ পর্যন্ত যাওয়া দরকার। বিদেশে ট্রাম্পের বিনিয়োগ মার্কিন নীতিকে দেশের স্বার্থ বিরোধী ভাবে প্রভাবিত করছে কিনা তা আমাদের খুঁজে দেখতে হবে।ট্রাম্প এখনও নিজের ব্যবসার মালিক। তবে প্রতিদিনই তা থেকে নিজের নিয়ন্ত্রণ ছেড়ে দিচ্ছেন তিনি। ২০১৫ সালে এক নির্বাচনি প্রচার র‍্যালিতে তিনে বলেছিলেন, সৌদি আরবে বিনিয়োগ থেকে শত শত কোটি ডলার আয় করেছেন তিনি।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »