১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ বিকাল ৪:০৫

ভোটকক্ষ নয়, কেন্দ্র থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮,
  • 85 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

ভোটকক্ষে নির্বাচনের ছবি তোলার অনুমতি দিলেও সেখান থেকে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে সরাসরি সম্প্রচারের অনুমতি দেবে না নির্বাচন কমিশন। তবে ভোট কক্ষের বাইরে বেরিয়ে কেন্দ্র এলাকা থেকে সরাসরি সম্প্রচারের সুযোগ দেওয়া হবে। শনিবার (১৫ ডিসেম্বর) নির্বাচন ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। তিনি জানিয়েছেন, টেলিভিশন চ্যানেলগুলো ভোটের সময় ভোটকক্ষের ভেতরে গিয়ে সরাসরি সম্প্রচার করতে গেলে ভোট গ্রহণে বিঘ্ন ঘটে। তাই, ভোটকেন্দ্র থেকে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে সরাসরি সম্প্রচার করতে দেওয়া হবে না। তবে, তারা ভোটকক্ষে প্রবেশ করে ছবি তুলে বেরিয়ে গিয়ে ভোটকেন্দ্র এলাকা থেকে (বারান্দা বা মাঠ থেকে) সরাসরি সম্প্রচার করতে পারবেন।একইসঙ্গে ভোটকেন্দ্র প্রবেশের ক্ষেত্রে বিধি নিষেধ আরোপ করেছে নির্বাচন কমিশন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ বিষয়ে বলেন, সাংবাদিকদের প্রতিটি কেন্দ্রে সীমিত আকারে যেতে হবে কারণ একসঙ্গে অনেকে গেলে নির্বাচনি কর্মকর্তাদের দায়িত্ব পালনে বিঘ্ন ঘটে। সেক্ষেত্রে কতজন একত্রে যেতে যেতে পারবেন তা নির্ভর করবে  সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কেন্দ্রের ধারণ ক্ষমতার ওপর। আর এক্ষেত্রে অনুমোদন নিতে হবে ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারের কাছ থেকে।এ বিষয়ে সিইসি বলেন, প্রিজাইডিং অফিসারের ব্যবস্থাপনা মানতে হবে। তার কক্ষের ধারণ ক্ষমতা বিবেচনা করে যতজনকে অনুমোদন দেন সেটা অনুসরণ করতে হবে।একইসঙ্গে সাধারণ ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে মোবাইল ফোন নিয়ে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে পেশাগত দিক বিবেচনা করে সাংবাদিকদের ক্ষেত্রে মোবাইল ফোন ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সাংবাদিকরা ভোটকেন্দ্রের ভেতরে মোবাইল ফোন দিয়ে ছবি তুলতে পারলেও সেখান থেকে ফোনে কোনও ধরনের কথোপকথন করতে পারবেন না।সিইসি এবিষয়ে বলেন, ভোটকক্ষে কেউ মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে পারবে না। শুধু সাংবাদিক ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা মোবাইল  নিয়ে প্রবেশ করে ছবি তুলতে পারবেন। কিন্তু ভোটকক্ষে মোবাইলে কথা বলতে পারবেন না। সাংবাদিকদের মতো নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের বিষয়েও একই ধরনের নির্দেশনা মানতে হবে।এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী আরও ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, বুথের ভেতর একসঙ্গে ৫টি টেলিভিশন ঢুকলে অন্যরা চেষ্টা করবে ঢুকতে। কিন্তু, দেখা যাবে আর কেউ ঢুকতেই পারছে না।  ভোট নেওয়াতেও সমস্যা হবে। সেটাকে বিবেচনা করে বলেছি একটি টেলিভিশন চ্যানেল (রিপোর্টার ও ক্যামেরা পারসন) যেন অধিকক্ষণ বুথের মধ্যে না থাকে। কতজন একসঙ্গে যেতে পারবে সেটা কেন্দ্রের ধারণ ক্ষমতার ওপর নির্ভর করবে।আর, মোবাইল ফোন ব্যবহারের নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে এই কমিশনার বলেন, অনেক প্রার্থী আছে যারা ভোটারদের ভোট দিয়ে মোবাইল ফোনে ছবি তুলে এনে দেখাতে বলেন। তারা দেখতে চান সংশ্লিষ্ট ভোটার কোন প্রতীকে ভোট দিয়েছেন। এই ধরনের অনিয়ম রোধ করার জন্যই আমরা বলেছি কেন্দ্রে কোনও রকমের মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে কমিশনার মাহবুব তালুকদার, কবিতা খানম ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »