২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৬:৪০

দীর্ঘদিন বাদে জনসমক্ষে ‘ডিস্কো ডান্সার’, তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিলেন মিঠুন

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শুক্রবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৯,
  • 64 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

বহুদিন পর প্রকাশ্যে এলেন মিঠুন চক্রবর্তী। অসুস্থতার খবর পাওয়ার পর থেকে কার্যন্ত অন্তরালেই চলে গিয়েছিলেন তিনি। সোমবার সকালে দেখা গেল তাঁকে৷ তবে কোনও শুটিংয়ে নয়। তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা।

সোমবার ভোর সাড়ে পাঁচটা নাগাদ তারাপীঠ মন্দিরে পৌঁছান মিঠুন চক্রবর্তী। মুখ ঢেকে মন্দিরে প্রবেশ করেন তিনি। মন্দিরে দেবীমূর্তির সামনে আরতি করেন। জবা ও পদ্মের মালা দিয়ে পুজোও দেন। তারপর কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি বেরিয়ে যান। বেরোনোর সময়ও মুখ ঢাকা ছিল তাঁর৷ কিন্তু ততক্ষণে মন্দিরের বাইরে উপস্থিত ভক্তদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অভিনেতার আগমনের খবর। ফলে মন্দির থেকে বেরোনোর পরই তাঁকে ঘিরে ধরে অনুরাগীরা। অভিনেতার শরীর কেমন আছে, জানতে চান।

[ আরও পড়ুন: পাকা সেতুর দীর্ঘদিনের দাবি অপূরণীয়, মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি বাগদাবাসীর ]

২০০৯ সালে ‘লাক’ ছবির শুটিং করতে গিয়ে পিঠে আঘাত পান মিঠুন। তারপর থেকে সেই ব্যথা তাঁকে ভোগাচ্ছিল। তারপর প্রায়ই পিঠে ব্যথা হত তাঁর। ২০১৬ সালে পিঠে ব্যথা নিয়েই তিনি হাসপাতালে ভরতি হন। পুরোদমে চলছিল তাঁর চিকিৎসা। কিন্তু দু’বছর কেটে গেলেও খুব সুস্থ হয়ে ওঠেননি। গত বছর মে মাসেও পিঠে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন মিঠুন। তখন জনপ্রিয় ডান্স রিয়ালিটি শো ‘ডান্স ইন্ডিয়া ডান্স’-এ গ্র্যান্ড মাস্টার ছিলেন তিনি। কিন্তু ব্যথার জন্য মাঝপথে শো থেকে সরে আসেন। দিল্লিতে তাঁর চিকিৎসা চলছিল। চিকিৎসায় উন্নতিও হচ্ছিল। অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। কিন্তু ডিসেম্বরে ফের মাথাচাড়া দেয় সেই ব্যথা। তাই আর ঝুঁকি নিতে চায়নি তার পরিবার। চিকিৎসা করতে লস অ্যাঞ্জেলস গিয়েছিলেন তিনি। সেখানকারই একটি হাসপাতালে চিকিৎসা হয় তাঁর।

তারপর অভিনেতার আর কোনও খবর পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে তারাপীঠ মন্দিরে হঠাৎ তাঁকে দেখতে পাওয়া যায়। স্বাভাবিকভাবেই অভিনেতার শারীরিক খবর জানতে উৎসুক হন অনুরাগীরা। মিঠুন কিন্তু অনুরাগীদের সঙ্গে বাক্যালাপ করেননি।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »