২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৭:৪৯

বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছেন শ্রীলঙ্কান মুসলিমরা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শুক্রবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৯,
  • 51 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

শ্রীলঙ্কার পশ্চিম উপকূলীয় শহর নেগোম্বো ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন যাচ্ছেন শত শত মুসলমানরা। শহরটির খ্রিস্টান ও মুসলমানদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন পালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা যায়। গত রবিবার নেগোম্বো শহরের সেন্ট সেবাস্তিয়ান গির্জায় জঙ্গি হামলার জেরে এই সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে।

গত রবিবার শ্রীলঙ্কার ৩টি গির্জা ও ৪টি হোটেলসহ আটটি জায়গায় সিরিজ বোমা হামলা হয়েছে তাতে এখন পর্যন্ত মোট ৩৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যদিও গতকাল শ্রীলঙ্কার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে নিহতের সংখ্যা ৩৫৯ নয় ২৫০। শুধু এই নেগোম্বো শহরের সেন্ট সেবাস্তিয়ান গির্জার হামলাতেই শতাধিক নিহত হয়েছেন।

রবিবারের হামলায় এখানেই সবচেয়ে বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। আর তার জেরেই খ্রিস্টান ও মুসলমানদের মধ্যে তীব্র সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, গত বুধবার শতশত পাকিস্তানি মুসলমান শ্রীলঙ্কার এই বহুজাতিক বন্দরনগরী নেগোম্বা থেকে পালিয়ে গেছেন। স্থানীয়রা মুসলমানদের ওপর প্রতিশোধ নেওয়ার হুমকি দিলে মুসলমানরা পালাতে শুরু করেন।

বাসে চড়ে পালানোর জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার সময় আদনান আলি নামের এক পাকিস্তানি মুসলমান ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, এখানকার গির্জায় বোমা হামলার পর স্থানীয় বাসিন্দারা আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। কিন্তু আমরা এখন কোথায় যাবো তা আমরা এখনো জানি না।’ রবিবারের হামলার পর তারা আবারও গৃহহীন হয়ে পড়লেন।

ফারাহ জামিল নামের এক পাকিস্তানি আহমদিয়া মুসলমান জানান, তাকে তার বাড়িওয়ালা বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছেন।

ফারাহ বলেন, “আমার বাড়িওয়ালা আমাকে বলেন, এখান থেকে চলে যাও। এবং যেখানে খুশি সেখানে যাও। কিন্তু এখানে আর থেকো না’। রয়টার্সের সঙ্গে কথা বলার সময় ফারাহ একটি আহমদিয়া মসজিদের সামনে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন; নিরাপদ কোনো আশ্রয়ে যাওয়ার জন্য।

শ্রীলঙ্কান পুলিশ অবশ্য সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ঠেকাতে অজ্ঞাত সংখ্যক লোককে আটক করেছে। সেন্ট সেবাস্তিয়ান গির্জার আশে-পাশের এলাকাগুলোতে পুলিশ দাঙ্গাবিরোধী অভিযানও চালাচ্ছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »