২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ৪:১৭
ব্রেকিং নিউজঃ

‘আপনি সব সীমা পার করেছেন,’ মমতাকে কড়া আক্রমণ সুষমার

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, মে ৮, ২০১৯,
  • 106 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

নয়াদিল্লি: ভোটের মরশুমে প্রধানমন্ত্রী মোদীর অন্যতম প্রধান বিরোধী হয়ে উঠেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জনসভা থেকে বারবার একে অপরকে প্রচ্ছন হুঁশিয়ারি দিয়ে চলেছেন দু’জনেই। তবে এবার মমতার বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন বিজেপির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেত্রী সুষমা স্বরাজ। ‘আপনি সব সীমা পার করে গিয়েছেন’, এই ভাষাতেই আক্রমণ করলেন মমতাকে।

ভোটপ্রচারে প্রায় প্রত্যেকদিনই ময়দানে নামছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। আর নিত্যনতুন ভাষায় বিজেপি তথা প্রধানমন্ত্রী মোদীকে আক্রমণ করছেন তিনি। তবে মঙ্গলবার এক বেনজির আক্রমণ শোনা যায় তাঁর গলায়।

মোদীকে গণতন্ত্রের থাপ্পড় দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তৃণমূল নেত্রী। এর জবাবে সুষমা স্বরাজ বলেন একজন দেশ প্রধানকে এমন কথা বলায় আপনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা নিতে বাধ্য হব ।মিথ্যেবাদী প্রধানমন্ত্রী বলেও খোঁচা দেন তিনি। রাজ্যে এসে বারবার তৃণমূলের তোলাবাজির বিরুদ্ধে কথা বলেন মোদী। আর তারই জবাবে মমতার এই আক্রমণ। বাঁকুড়ার সাতুড়ির জনসভা থেকে একথা বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

এরপরই ট্যুইট করে মমতাকে কড়া জবাব দেন কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। সাম্প্রতিককালে এভাবে মমতাকে আক্রমণ করার নজির নেই সুষমার। তবে এবার তিনিও আক্রমণ শানালেন বেশ কড়া সুরেই।

ট্যুইটে তিনি লেখেন, ‘মমতা জি, আপনি সব সীমা পার করে গিয়েছেন। আপনি একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আর মোদীজি দেশের প্রধানমন্ত্রী। কাল আপনাকে ওনার সঙ্গে কথা বলতে হতে পারে।’ মমতাকে হুঁশিয়ারি দিতে গিয়ে উর্দু কবি বশির বদরের লেখা দুটি লাইনের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

दुश्मनी जम कर करो लेकिन ये गुंजाइश रहे
जब कभी हम दोस्त हो जाएँ तो शर्मिंदा न हों…

যার বাংলা মানে হয়, ‘শত্রুতা যত ইচ্ছা করুন। কিন্তু একটাই কথা, যদি কখনও বন্ধুত্ব করতে হয়, তখন যেন লজ্জায় পড়তে না হয়।’

মঙ্গলবার বাঁকুড়ার সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, ”নরেন্দ্র মোদী দেশের সবচেয়ে বড় দুর্যোগ৷ মঙ্গলবার বাঁকুড়ার রানিবাঁধে সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের হয়ে প্রচারে গিয়ে এভাবেই নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি বলেন, বাংলায় কতবার বন্যা হয়েছে, তবু কোনও দিন বাংলামুখো হয়নি। কোনওদিন টিকি পাওয়া যায়নি আর এখন বসন্তের কোকিল হয়ে এসেছে, বলছে মিত্রোঁ ভোট দে দো, কেন ভোট দেবে?

এর আগে মমতা ফণী নিয়ে মোদীর বৈঠকে যেতে অস্বীকার করেন মমতা। বলেন, ‘উনি এক্সপায়ারি প্রধানমন্ত্রী। ওনার সঙ্গে মঞ্চ ভাগ করতে চাই না।’

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »