১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ৮:৫৭
ব্রেকিং নিউজঃ
চানক‍্য-কৌটিল‍্য বিএনপি সন্ত্রাসীদের দৌরত্বে প্রধানমন্ত্রী, বরাবর, আবেদন করলেন অসহায় একটি হিন্দু পরিবার। হরিণের চামড়া ও মাংস পাচারকালে,এনজিও পরিচালক মৃদুল হালদারসহ চার জন গ্রেফতার যোগের মহিমা কি? ৩ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ-ভারত ফ্লাইট চালু পিরোজপুরের দৈহারীতে মন্দির ভাঙ্গায় চেয়ারম‍্যান জহিরুল ইসলামের হাত আছে স্থানিয়দের ধারনা। সাদিক আব্দুল্লাহর নাম ভাংগিয়ে এলাকায় ত্রাস-ভূমি দখলের চেষ্ঠা মাসুম বিল্লাহর ।। সরকারী খালে বাধ দিয়ে মাছ চাষ করায় হাজারো কৃষকের ভাগ্য পানির নিচে।। অর্পিতাকে বাঁচাতে এক হলেন তিন দেশের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক! আফগানদের আকাশ থেকে ফেলে গেল যুক্তরাষ্ট্র ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট চালু ২০ আগস্ট

আজিমপুরে অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা বেগমের দাফন সম্পন্ন

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, মে ৯, ২০১৯,
  • 99 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

কঙ্গোতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা বেগমকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বাদ জোহর রাজারবাগ পুলিশ লাইনে তৃতীয় নামাজে জানাজা শেষে তাকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা বেগমের মরদেহ বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে তার্কিশ এয়ারওয়েজের একটি বিমানে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিমানবন্দরে তার মরদেহ গ্রহণ করেন। এরপর সকাল ১০টায় রাজধানীর মগবাজার নয়াটোলা জামে মসজিদে তার প্রথম জানাজা এবং দুপুর ১২টায় মগবাজার ওয়্যারলেস জামে মসজিদে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, মহাপুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব, মরহুমার দীর্ঘদিনের সহকর্মীবৃন্দ, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যগণ এবং আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব তার জানাজায় অংশ গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা বেগম ৩ মে ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে শান্তিরক্ষা মিশনে কর্মরত বাংলাদেশ নারী আর্মড পুলিশ ইউনিটের মেডেল প্যারেড উপলক্ষে গিয়েছিলেন। সেখানে স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি নিহত হন। তার বয়স ছিল ৫৭ বছর। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েরর মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জনের পর ১৯৮৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে রওশন আরা বেগম পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন।

১৯৯৮ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত মুন্সীগঞ্জের এসপি হিসেবে তিনি সফলভাবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি বিভিন্ন কমিশনে ডেপুটি কমিশনার, অতিরিক্ত কমিশনার এবং পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। জঙ্গিদের গ্রেফতার, মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধারসহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য তাকে দুইবার ‘ইন্সপেক্টর জেনারেল গুড সার্ভিসেস ব্যাজ’ এ ভূষিত করা হয়েছিল।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »