১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৬:৪৮
ব্রেকিং নিউজঃ
ভাইজানের ব্রিগেড !! বরিশালের বিখ্যাত সুগন্ধা নাসিকা-শক্তিপীঠ (তাঁরাবাড়ি) পরিদর্শনে আসার সম্ভাবনা রয়েছে – ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির বাংলা মাসীকে চায় না ২ মে আমার কথা মিলিয়ে নেবেন পিকে: স্বপন মজুমদার মুশতাকের মৃত্যু: স্বচ্ছ তদন্তের দাবি জানাল যুক্তরাষ্ট্র রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপি’র পর সিপিএম প্রধান বিরোধী শক্তি হয়ে ওঠার লক্ষ্যে ঘুঁটি সাজাচ্ছে !! আট দফায় বেনজির ভোট পশ্চিম বাংলায়! অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণ করছেন শেখ হাসিনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন কি ‘স্বাভাবিক’ হয়ে উঠল চট্রগ্রামের পটিয়া উপজেলায় প্রায় দেড় শতাধিক সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারকে ভিটে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে নতুন বাইপাস সড়ক করার অপচেষ্টা চলছে। মিনি পাকিস্তানের প্রবক্তা ফিরহাদ হাকিমের বাইকের পিছনে সওয়ার কেন মমতা ব্যানার্জী ?

৪৮টি আসন নিয়ে দিল্লিতে ক্ষমতায় আসছে বিজেপিই: চাঞ্চল্যকর দাবি মনোজের

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২০,
  • 41 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

নয়াদিল্লিঃ  ৪৮টি আসন নিয়ে দিল্লিতে ক্ষমতার আসছে বিজেপিই। এক্সিট পোল উড়িয়ে এমনটাই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন দিল্লি বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি। এক্সিট পোলের ইঙ্গিত, রাজধানীর বুকে ফের ফিরছে কেজরিওয়ালের সরকার। একদিকে যখন বিজেপির বিপর্যয়ের ইঙ্গিত অন্যদিকে তখন মনোজ তিওয়ারির আত্মবিশ্বাসী মন্তব্য, আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি সমস্ত এক্সিট পোল ফেল করবে। ৪৮টি আসন নিয়ে দিল্লির বুকে ক্ষমতা আসবে বিজেপিই।

এখানেই শেষ নয়, মনোজ তিওয়ারির দাবি, বিভিন্ন এক্সিট পোল বিভিন্ন ধরনের সংখ্যা দেখাচ্ছে। কেউ বলছে ২৬ টা আবার কেউ বলছে আবার ২ থেকে ১১টি আসন পাবেন দিল্লি। কিন্তু কোনও সংখ্যাই যে সঠিক নয়, তা আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি প্রমাণ করে দেবে বলে দাবি বিজেপির রাজ্য সভাপতির।

উল্লেখ্য, দিল্লি বিধানসভায় ৭০টি আসন। বেসরকারি এই সমীক্ষায় পশ্চিম দিল্লির ১৬-১৯টি আসন পেতে পারেন আপ-এর প্রার্থীরা। উলটোদিকে, সমীক্ষা অনুযায়ী পশ্চিম দিল্লিতে গেরুয়া শিবিরের খাতা খোলার সম্ভাবনাই কম।

অন্যদিকে, এক্সিট পোলে দিল্লির বুকে দলের পরাজয়ের আভাস পাওয়ার পরেই নড়েচড়ে বসেছে বিজেপি নেতৃত্ব। রাতেই জরুরি বৈঠক ডেকেছেন অমিত শাহ। জানা যাচ্ছে, জরুরি এই বৈঠকে সমস্ত দিল্লির সাংসদদের উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। এক্সিট পোলে দলের এহেন পরাজয়ের আভাস পাওয়ার পরেই অমিত শাহের ডাকা এই বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। অমিত শাহ ছাড়াও বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা সহ একাধিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব উপস্থিত থাকবেন।

কেন দলের এই অবস্থা সেই বিষয়ে নেতৃত্বের কাছে জানতে চাইবেন বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি দিল্লির সাংসদদের কাছ থেকেই জবাব চাইতে পারেন অমিত শাহ, এমনটাই মনে করা হচ্ছে। সবশেষে সাংসদ সহ নেতৃত্বকে কড়া বার্তা শাহ-মোদীরা দিতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

একদিকে যখন দলের পরাজয়ের কারণ খুঁজতে ব্যস্ত বিজেপি শিবির, তখন এহেন এক্সিট পোলের পর যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী আপ শিবির। আত্মবিশ্বাসী খোদ আপ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালও। জানা যাচ্ছে, এই মুহূর্তে তিনিও বৈঠকে বসেছেন। দলের শীর্ষ নেতৃত্ব এই বৈঠকে উপস্থিত রয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। আপের আশঙ্কা, এক্সিট পোলের পর ইভিএমে কারসাজি করতে পারে বিজেপি। আর তাই ইভিএমগুলির নিরাপত্তা সহ দলের আগামী সূচি কি হবে তা ঠিক করতেই এই বৈঠক কেজরিওয়ালের বলে সূত্রে জানা যাচ্ছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »