৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ সকাল ১১:০৬
ব্রেকিং নিউজঃ
ভারতে ‘লাভ জিহাদ’ রুখতে বিল পাশ মানিকগঞ্জে একটি হিন্দু পরিবারের উপর হামলা বিশ্ব হিন্দু পরিষদের(ভি,এইচ,পি)তিন দফা হিন্দু সুরক্ষা আইন ও পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনের দাবি হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদকে নিষিদ্ধ করার দাবি বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ জয়ন্তী হালদারকে জোর করে তুলে নিয়েছিল রাশেদ উদ্ধার করে পুলিশ । হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ বিজ্ঞানীকে হত্যা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ সিরাজ খান পার্বত্য চট্টগ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ বছরে ৪শ’ কোটি টাকার চাঁদাবাজি দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ৫৮৫০ মিটার দুবলার চরে রাস পূর্ণিমায় নিরাপত্তা দিবে কোস্ট গার্ড

আমি ১৬ বছর বয়স থেকে হিন্দু ধর্মের বিষয়ে পড়ছি, হিন্দুরা মহান জাতি: ব্রাইন কে পেনিংটন, আমেরিকান অধ্যাপক

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, অক্টোবর ১৪, ২০২০,
  • 64 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

ভারতের বীর সন্ন্যাসী স্বামী বিবেকানন্দ বলতেন, পুরো বিশ্ব আমাদের মাতৃভূমির (ভারতবর্ষ) কাছে ঋণী। যে কোনো দেশকে নিয়ে নিন, কোনো জাতির কাছে তারা এতটা ঋণী নয়, যতটা এখানের ধর্য্যশীল, বিনম্র হিন্দুদের কাছে ঋণী। আমাদের অতীত গৌরবময় ছিল এবং ভবিষ্যত আরো গৌরবশালী হবে। লক্ষণীয় বিষয় যে, স্বামীজি যে ভবিষ্যতবাণী করে গেছিলন তা ধীরে ধীরে বাস্তবে রূপান্তর হতে দেখা যাচ্ছে।

বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ দুই দিক থেকে আঘাত সহ্য করেও অদ্ভুতভাবে হিন্দু জাতির এক নতুন পুনরুত্থান চোখে পড়ছে। ধর্ম, সংস্কৃতি সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞরাও হিন্দু জাতির মহাউত্থানের বিষয়টি স্বীকার করতে শুরু করেছেন। আমেরিকার নর্থ ক্যারোলিনা স্থিত এলোন ইউনিভার্সিটির ধার্মিক বিভাগের সিনিঅর অধ্যাপক ব্রেইন কে পেনিংটন হিন্দু ধর্মের উপর বড়ো মন্তব্য করেছেন।

অধ্যাপক ব্রাইন কে পেনিংটন বলেছেন, জীবনকে সঞ্চালন করার জন্য হিন্দুত্বের থেকে ভালো কোনো পদ্ধতি নেই। উনি বলেছেন, আমি ১৬ বছর বয়সে প্রথম গীতা পড়েছিলাম। সেই সময় প্রথম হিন্দু ধর্ম ও হিন্দুত্বের প্রতি আমার আগ্রহ জাগ্রত হয়েছিল। এরপর আমি হিন্দুদের নানা ধর্ম সাহিত্য, সাধু সন্ন্যাসীদের বিষয়ে পড়াশোনা করি। বিবেকানন্দ সহ অন্যান্য মহাপুরুষদের বিষয়ে অধ্যয়ন করার পর আমি হিন্দুত্বের প্রতি আরো আকৃষ্ট হয়ে পড়ি।

অধ্যাপক ব্রাইন বলেছেন, আমি মহাভারতের যুধিষ্ঠিরের চরিত্র দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিলাম। উনি আরো বলেন, হিন্দুরা প্রকৃতির পুজো অত্যন্ত উৎফুল্লতার সাথে করে। যার উদাহরণ গঙ্গা কে মা বলে সম্বোধন করাতে স্পষ্ট বোঝা যায়। প্রফেসর ব্রেইন বলেন, হিন্দুদের কালচার খুব শক্তিশালী সংস্কৃতি যা ভারত দেশকে উচ্চতম শিখরে নিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »