২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ রাত ১২:৫৪
ব্রেকিং নিউজঃ
ভারতে ‘লাভ জিহাদ’ রুখতে বিল পাশ মানিকগঞ্জে একটি হিন্দু পরিবারের উপর হামলা বিশ্ব হিন্দু পরিষদের(ভি,এইচ,পি)তিন দফা হিন্দু সুরক্ষা আইন ও পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনের দাবি হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদকে নিষিদ্ধ করার দাবি বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ জয়ন্তী হালদারকে জোর করে তুলে নিয়েছিল রাশেদ উদ্ধার করে পুলিশ । হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ বিজ্ঞানীকে হত্যা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ সিরাজ খান পার্বত্য চট্টগ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ বছরে ৪শ’ কোটি টাকার চাঁদাবাজি দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ৫৮৫০ মিটার দুবলার চরে রাস পূর্ণিমায় নিরাপত্তা দিবে কোস্ট গার্ড

সংখ্যালঘু নির্যাতনের প্রতিবাদে সারাদেশে বিক্ষোভ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, নভেম্বর ৭, ২০২০,
  • 159 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

গুজব ছড়িয়ে হিন্দুদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, নারী নির্যাতন, হিন্দু ছাত্রদের ছাত্রত্ব বাতিলের অপপ্রয়াস, ধর্মপ্রাণ শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও সভা সমাবেশে অন্য ধর্মের প্রতি অব্যাহত কটূক্তির প্রতিবাদ ও সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, কমিশন ও সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় গঠনের দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতা জানান, সারাদেশের ন্যায় বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট, যুবজোট ও ছাত্রজোট ঈশ্বরদী উপজেলা ও পৌর শাখা যৌথভাবে এই কর্মসূচির আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি সন্তোষ সরকার।

হিন্দু মহাজোট পাবনা জেলা কমিটির সমন্বয়কারী গোপাল অধিকারীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ঈশ্বরদী প্রেসক্লাব সভাপতি স্বপন কুমার কুণ্ডু, ঈশ্বরদী উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সুনীল চক্রবর্তী, খেলাঘরের সংগঠক হাসানুজ্জামান, হিন্দু মহাজোট উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক দেব দুলাল রায়, ঐক্য পরিষদের সহ-সভাপতি সনৎ কুমার, পৌর কমিটির সভাপতি পার্থ প্রতিম দাস, ডা. সুজয় কণ্ডু উত্তম সাহা, দীপ্ত রায় প্রমুখ। হিন্দু মহাজোটের বিভাগীয় প্রধান সমন্বয়কারী সুভাষ চন্দ্র সরকার ও সহ-সভাপ্রতি প্রদীপ কুমার রায় এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, স্বাধীন দেশে এক শ্রেণির স্বার্থান্বেষী মহল ব্যক্তি স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা ও নির্যাতন চালিয়ে রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার যড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এসব ষড়যন্ত্রকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার, দৃষ্টন্তমূলক শাস্তি ও সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা বিধান নিশ্চিত করতে হবে।

ঝিনাইদহ থেকে ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি জানান, তথ্য প্রযুক্তির অপব্যবহার করে ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলা ও অগ্নি সংযোগের প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

শনিবার সকালে শহরের পোস্ট অফিস মোড়ে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদ জেলা শাখা।

ঘণ্টা ব্যাপী এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী নেতৃবৃন্দ সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। ধর্মীয় রাষ্ট্র নয়, ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র চাই। তারা সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধেরও দাবি করেন।

নরসিংদী প্রতিনিধি জানান, সারাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে নরসিংদীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা-নির্যাতন, বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, অপহরণ, গুমসহ বিভিন্ন নির্যাতনের প্রতিবাদে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় চত্বর প্রাঙ্গণে শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

নরসিংদী জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ অহিভূষণ চক্রবর্তী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা রঞ্জিত কুমার সাহা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন কুমার সাহা, নরসিংদী শহর পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সভাপতি শ্যামল কুমার সাহা, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক অনীল চন্দ্র ঘোষ, সদস্য সচিব সুব্রত দাস, চিনিশপুর ইউপি সদস্য নারায়ণ চন্দ্র সাহা, অধ্যক্ষ বীরেশ্বর চক্রবর্তী, উত্তম মোদক, নরসিংদী জেলা যুবলীগের সভাপতি বিজয় গোস্বামী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন।

রাজশাহী অফিস জানায়, ‘ধর্ম যার যার, রাষ্ট্র সবার; সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র নয়, ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র চাই’ দিনাজপুরের পার্বতীপুর ও কুমিল্লার মুরাদনগরে সংখ্যালঘু এলাকায় সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী অপশক্তির হামলা, অগ্নিসংযােগ, নির্যাতন, অধ্যাপক কুশল চক্রবর্তীকে হত্যার হুমিক, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও সভা-সমাবেশে বিভিন্ন ধর্ম নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করা হয়েছে। একই সঙ্গে মানববন্ধন থেকে সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন ও সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় গঠনের দাবি জানানো হয়। শনিবার সকালে রাজশাহী নগরের সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে।

চাটমোহর (পাবনা) সংবাদদাতা জানান, পাবনার চাটমোহরে শনিবার সকালে সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী মানববন্ধন ও গণঅবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। স্থানীয় থানা মোড় আমতলায় বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চাটমোহর উপজেলা শাখা এই মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করে।

সংগঠণের উপজেলা সভাপতি জয়দেব কুন্ডুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সংগঠণের সহ-সভাপতি ডা. অঞ্জন ভট্টাচার্য, সহ-সভাপতি অধ্যাপক পিনাক ভট্টাচার্য,সাধারণ সম্পাদক পলাশ ডি কস্তা, সাংগঠনিক সম্পাদক তুষার ভট্টাচার্য,অধ্যাপক অনুপ কুন্ডু, চাটমোহর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি হেলালুর রহমান জুয়েল, ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বেলাল হোসেন স্বপন, সমাজসেবী খন্দকার হোসনেয়ারা হাসি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ঠাকুরগাঁও সংবাদদাতা জানান, ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক হামলার ঠাকুরগাঁওয়ের প্রতিবাদে পীরগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও গণ অবস্থান কর্মসূচি হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, পূজা উদযাপন পরিষদ ও যুব ঐক্য পরিষদের যৌথ আয়েজনে বিক্ষোভ মিছিল ও গণ অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক বিপ্লব, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুকুমার রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ভারতী রাণী রায়, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অতুল চন্দ্র রায়, সম্পাদক গোপী কৃষ্ণ রায়, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি গোপাল চন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক প্রফুল্ল চন্দ্র রায়, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি বিষ্ণু পদ রায় প্রমুখ।

জয়পুরহাট প্রতিনিধি জানান, সারাদেশে সংখ্যা লঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও বাড়ি ঘরে অগ্নি সংযোগের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে জয়পুরহাটে যৌথভাবে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদ।

জেলা শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ চত্বরে আয়োজিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি চলাকালে সারাদেশে সংখ্যা লঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও বাড়ি ঘরে অগ্নি সংযোগের ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদ জয়পুরহাট শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন কুমার খাঁ, সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার খাঁ, উৎপল কুমার মন্ডল, নেপাল মন্ডল, দীপক নন্দী, অ্যাড. সুশান্ত মহন্ত, সুজন কুমার, পূজা উদযাপন পরিষদের জেলা সভাপতি অ্যাড. হৃষিকেশ সরকার, সাধারণ সম্পাদক সুমন সাহা, শেখর মজুমদার প্রমুখ।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »