৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ রাত ১২:৫৬
ব্রেকিং নিউজঃ
বিমানবন্দরে সাফজয়ী কৃষ্ণা রানীর আড়াই লাখ টাকা চুরি ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা ঢাকায় কপাল পুড়বে ১৪০ এমপির প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সঙ্গী হলেন যারা কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীতে হিন্দুদের বাড়ি-ঘর ও দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। রাঙ্গামাটিতে সুভাষ দাস ও মনি দাস দম্পতিকে গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার স্ট্যান্ডার্ড ৮৫টি প্রশ্ন ব্যাংক ও উত্তর নিজে শিখুন এবং অন্যকে শেখার জন্য উৎসাহিত করুন। আবার ভুমিদস্যুর হাতে আহত সংখ্যালঘু হিন্দু… বাংলাদেশেও অর্থপাচারের অভিযোগ পার্থের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের সম্পর্ক উন্নয়নে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকা

গোপালগঞ্জে মন্দির ভাঙচুর, মানববন্ধন

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ৩০, ২০২০,
  • 598 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার জলিলপাড় বাসষ্টান্ড সংলগ্ন গুচ্ছগ্রাম চরে শ্রী শ্রী মা-কালী মন্দিরে ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গুচ্ছগ্রামে বিচরন মজুমদারের বাড়ির সামনে সরকারি খাস জমিতে শ্রী শ্রী মা কালী সার্বজনীন মন্দির নামে একটি মন্দির রয়েছে । এই মন্দিরে এলাকার প্রায় ১০০ টি পরিবার পূজা আর্চনা করেন । সম্প্রতি জলিলপাড় ভূমি অফিসের তহশীলদার লিপটন মন্ডল এলাকায় এসে মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা বিচরন মজুমদারকে ভূমি অফিসে এসে দেখা করার কথা বলেন । বিচরন মজুমদার দেখা করতে গেলে ভূমি অফিসার তার কাছে মন্দির রাখতে হলে টাকা দিতে হবে বলে দাবী করেন । বিচরন টাকা দিতে রাজি না হলে পরবর্তীতে বৃহস্পতিবার দুপুরে তহশীলদার সহ ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা এসে একটি দোকান সহ মন্দির টি ভাংচর করে ।

এ সময় এলাকার লোকজনের বাধার মুখে তহশীলদার এলাকা ত্যাগ করেন এবং যাওয়ার সময় বিচরন সহ এলাকার সরকারী সম্পত্তিতে বসবাসরত সকলকে উচ্ছেদ করার হুমকি দিয়ে বলেন সবাই কে দেখে নিবো ।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে এলাকাবাসী ঝাড়ু মিছিল সহ মানববন্ধন করে । এ সময় মানববন্ধনকারা বলেন, ২৪ ঘন্টার মধ্যে এর সঠিক বিচার না পাই তাহলে আগামীকাল থেকে সড়ক অবরোধ সহ অন্যন্য কর্মসূচি ঘোষনা করা হবে ।

এলাকার বাসিন্দা আনন্দ মজুমদার অভিযোগ করে বলেন, ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের আচরনে আমরা অতিষ্ট । তারা প্রায় প্রায় এসে বলে সরকারী যায়গায় বসবাস করতেহলে আমাদের টাকা দিতে হবে, তা না হলে এখানে বসবাস করা যাবে না বলে হুমকি দেন । যারা টাকা দেয় তাদেও কিছু বলেন না আর যারা টাকা দিতে না পরে তাদেও সাথে খারাপ আচরন করা হয় ।

অভিযুক্ত ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা লিপটন মন্ডল বলেন, আমি সরকারী জায়গা পরিদর্শনে যাই। সেখানে গিয়ে আমি লাঞ্চিত হই । আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা ।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »