৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৬:৩৫
ব্রেকিং নিউজঃ
বিমানবন্দরে সাফজয়ী কৃষ্ণা রানীর আড়াই লাখ টাকা চুরি ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা ঢাকায় কপাল পুড়বে ১৪০ এমপির প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সঙ্গী হলেন যারা কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীতে হিন্দুদের বাড়ি-ঘর ও দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। রাঙ্গামাটিতে সুভাষ দাস ও মনি দাস দম্পতিকে গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার স্ট্যান্ডার্ড ৮৫টি প্রশ্ন ব্যাংক ও উত্তর নিজে শিখুন এবং অন্যকে শেখার জন্য উৎসাহিত করুন। আবার ভুমিদস্যুর হাতে আহত সংখ্যালঘু হিন্দু… বাংলাদেশেও অর্থপাচারের অভিযোগ পার্থের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের সম্পর্ক উন্নয়নে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকা

এই যৌনকর্মীর গল্প শুনে কেঁদেছিলেন বিল গেটস

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ শনিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৮,
  • 238 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

যৌনকর্মীদের সমাজ বঞ্চনার চোখে দেখে ঠিকই, তবে প্রত্যেক যৌনকর্মীর জীবনের পিছনে রয়েছে কোনও না কোনও ভয়ঙ্কর গল্প। ভারতের এক যৌনকর্মীর কাহিনী শুনে চোখে পানি এসে গিয়েছিল বিশ্বের সেরা ধনী ব্যক্তিত্ব বিল গেটসেরও।

মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ভারতে আসতেন প্রায়ই। তিনি ও তার স্ত্রী সমাজসেবামূলক কাজের জন্যই আসতেন ভারতে। সম্প্রতি একটি বইতে প্রকাশিত হয়েছে সেই গল্প। মা যৌনকর্মী হওয়ায় সহপাঠীদের কাছে বারবার মানসিক নির্যাতন ও হয়রানির শিকার হতে হয়েছিল ওই মেয়েকে। এরপর আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিল সেই যৌনকর্মীর একমাত্র মেয়ে।

২০০০ সালে বিল গেটস প্রতিষ্ঠা করেন ‘বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন।’ সেই বছরের প্রথম দিকেই গেটস ফাউন্ডেশনের কাজে ভারতে এসেছিলেন বিল গেটস। সে সময় এক যৌনকর্মী বিল গেটসকে শুনিয়েছিলেন তার মর্মান্তিক জীবনের গল্প।

১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে গেটস ফাউন্ডেশনের এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ কর্মসূচির প্রধান অশোক আলেকজান্ডার তার ‘এ স্ট্রেঞ্জার ট্রুথ: লেসনস ইন লাভ, লিডারশিপ অ্যান্ড কারেজ ফ্রম ইন্ডিয়া’স সেক্স ওয়ার্কার্স’ বইটিতে একথা লিখেছেন।

ভারতের যৌনকর্মীদের সম্পর্কে কথা বলেছেন আলেকজান্ডার। কীভাবে এই কর্মীদের জীবন থেকে নেতৃত্ব, সাফল্যের কাহিনি ও দক্ষতা শেখা যায়, কীভাবে ভারত এইডসের মহামারি রুখতে উজ্জ্বল উদাহরণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, তাও লিখেছেন আলেকজান্ডার তার বইতে।

ভারতে গিয়ে বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে দেখা করেছিলেন তার ফাউন্ডেশনের কমিউনিটি নারী সদস্যদের সঙ্গে। তাদের মুখ থেকে শুনেছিলেন তাদের জীবনের গল্প।

সে রকমের একটি ঘটনার উল্লেখ করে আলেকজান্ডার লিখেছেন, ‘বিল গেটস এবং মেলিন্ডা ভারতে এলে যৌনকর্মীদের বিষয়ে শুধু কাজ করে যেতেন। বিল ও মেলিন্ডা যৌনকর্মীদের সামনেই মাটিতে বসে তাদের গল্প শুনতে চাইতেন। বেশির ভাগ গল্পই ছিল পরিত্যাগ, দারিদ্র্য ও সমাজের অবহেলা নিয়ে। প্রতিটি গল্পই ছিল সত্য।’

২০০০ সালে শোনা একটি গল্পের উল্লেখ নিজের বইতে করেছেন অশোক আলেকজান্ডার। সেই গল্প শুনে বিল গেটসের চোখে পানি এসে গিয়েছিল

 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »