৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ রাত ৯:৫৯

অপ্রতিরোধ্য মাশরাফি, ক্যারিয়ার সেরা বোলিং

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, জানুয়ারি ৯, ২০১৯,
  • 218 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে টানা দ্বিতীয় জয় পেয়েছে রংপুর রাইডার্স। মঙ্গলবার রাতে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার দুর্দান্ত বোলিংয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

বল হাতে এ দিন অপ্রতিরোধ্য ছিলেন মাশরাফি। টানা চার ওভারের স্পেলের প্রথম ওভারে শুধু উইকেট পাননি তিনি। পরের তিন ওভারে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ৪টিই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ওপরের দিকের চার ব্যাটসম্যান- তামিম ইকবাল, এভিন লুইস, ইমরুল কায়েস ও স্টিভ স্মিথের উইকেট। তাতেই কুমিল্লার ইনিংস গুটিয়ে যায় ৬৩ রানে। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার সেরা ১১ রানে ৪ উইকেট নেন রংপুর অধিনায়ক।  টি-টোয়েন্টিতে এর আগেও একবার ৪ উইকেট নিয়েছিলেন ডানহাতি এই পেসার। ২০১২ সালে বেলফাস্টে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৯ রানে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন বাংলাদেশের হয়ে।

মাশরাফির প্রথম ওভারে একটি চার হাঁকিয়েছিলেন এভিন লুইস। তার পরের তিন ওভারে আর কোনো বাউন্ডারিই মারতে পারেননি কুমিল্লার কোনো ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় ওভারে মাশরাফির স্লোয়ার উড়াতে গিয়ে মিড অনে সহজ ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তামিম ইকবাল। তৃতীয় ওভারে মাশরাফি ২ রানে নিয়েছেন ২  উইকেট। দ্বিতীয় বলে পয়েন্ট থেকে দৌড়ে যাওয়া রবি বোপারার দারুণ এক ক্যাচে ফেরেন ইমরুল কায়েস। পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে লং অনে নাজমুল ইসলাম অপুর হাতে ধরা পড়েন লুইস। আর শেষ ওভারে কোনো রান না দিয়েই মাশরাফি তুলে নেন কুমিল্লার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের উইকেট। 

বিপিএলে মাশরাফির আগের সেরা বোলিং ছিল ২০১৬ সালের আসরে কুমিল্লার হয়ে খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে ১৬ রানে ৩ উইকেট।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »