২রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যা ৬:৪৩
ব্রেকিং নিউজঃ
বিমানবন্দরে সাফজয়ী কৃষ্ণা রানীর আড়াই লাখ টাকা চুরি ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা ঢাকায় কপাল পুড়বে ১৪০ এমপির প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সঙ্গী হলেন যারা কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীতে হিন্দুদের বাড়ি-ঘর ও দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। রাঙ্গামাটিতে সুভাষ দাস ও মনি দাস দম্পতিকে গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার স্ট্যান্ডার্ড ৮৫টি প্রশ্ন ব্যাংক ও উত্তর নিজে শিখুন এবং অন্যকে শেখার জন্য উৎসাহিত করুন। আবার ভুমিদস্যুর হাতে আহত সংখ্যালঘু হিন্দু… বাংলাদেশেও অর্থপাচারের অভিযোগ পার্থের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের সম্পর্ক উন্নয়নে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকা

যারা দেশকে ভালোবাসেন, তারাই ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবেন: মোদি

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, জানুয়ারি ৯, ২০১৯,
  • 215 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

ভারতের লোকসভায় পাস হওয়া বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল নিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, দেশকে যারা ভালোবাসেন, কেবল তারাই ভারতে নাগরিকত্ব পাবেন। ভারতের জয়ধ্বনি যারা দেন, তাদেরই দেওয়া হবে ভারতের নাগরিকত্ব।বুধবার মহারাষ্ট্রের সোলাপুরে এক জনসভায় একথা বলেন তিনি। কংগ্রেস, বামফ্রন্টসহ বেশ কয়েকটি বিরোধীদলীয় জোটের জোরালো মতবিরোধের মধ্য দিয়েই মঙ্গলবার ভারতের লোকসভায় পাস হয় বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল।এই বিল লোকসভায় পাস হলেও পাস হয়নি রাজ্যসভায়। বুধবার বিলটি পেশ করার কথা রাজ্যসভায়। সেখানে সরকার সংখ্যালঘু। আর বিরোধীরা এই বিলের বিরুদ্ধে। তাই শেষপর্যন্ত বিলের ভবিষ্যৎ নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।অন্যদিকে জেনারেল ক্যাটাগরির জন্য ১০ শতাংশ সংরক্ষণ করে দেশের সকলের কেন্দ্রীয় সরকার সঙ্গে ন্যায়বিচার করল বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, সবকা সাথ, সবকা বিকাশ আমাদের সংস্কৃতি। এটাই আমাদের পরম্পরা। সকলকে ন্যায়বিচার দিয়ে লোকসভা সেই ভাবনাকে সম্মান জানিয়েছে।মঙ্গলবার লোকসভায় এই বিল পাস হয়। কারণ, সংসদের নিম্নমুখে এনডিএ সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠ। ফলে বিল পাসে তাদের তেমন কোনও অসুবিধা হয়নি।কিন্তু রাজ্যসভায় মোদি সরকার সংখ্যালঘু। ফলে সেখানে বিল আদৌ পাস হবে কি না, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। তার উপর অধিবেশন শুরুর সময় থেকেই রাজ্যসভা উত্তাল। বিল নিয়ে আলোচনা শুরু হলেও বিরোধীদের বিক্ষোভ অব্যাহত।প্রসঙ্গত, সোমবার জেনারেল ক্যাটাগরির সংরক্ষণের বিষয়টি সামনে আসে। ওইদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল। ওই বৈঠকেই এই সংরক্ষণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরে সরকারের তরফে জানানো হয়।সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জেনারেল ক্যাটাগরিতে এবার ১০ শতাংশ সংরক্ষণ দেওয়া হবে। আর্থিকভাবে যারা পিছিয়ে রয়েছেন, তারাই এই সংরক্ষণের আওতায় থাকবেন। তফসিলি জাতি, উপজাতি ও অনান্য অনগ্রসর শ্রেণিকে যে সংরক্ষণ দেওয়া হয়, তাতে এই নতুন সিদ্ধান্তে কোনও প্রভাব পড়বে না।এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে সংবিধানের ১৫ ও ১৬ নম্বর অনুচ্ছেদ সংশোধনের প্রয়োজন ছিল। সেই সংশোধনীই বিল আকারে মঙ্গলবার লোকসভায় পেশ হয়। আর তা পাসও হয়ে যায়। বুধবার ওই বিল পেশ করা হয়েছে রাজ্যসভায়। সূত্র-জি-নিউজ। 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »