২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যা ৬:৪৩
ব্রেকিং নিউজঃ
প্রেসক্লাব নওয়াপাড়ার বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত। এ্যাসিড সন্ত্রাসের শিকার চারমাসের সূর্য হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে । বাউফলে হিন্দু পরিবারের নারীসহ কুপিয়ে আহত ৫ পশ্চিমবঙ্গের রামপুরহাটে নারকীয় হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ক্ষতিয়ে দেখতে আসবেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। ফের চালু হতে চলেছে ভারত-বাংলাদেশ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল হিন্দু ব্যবসায়ী হত্যাকে কেন্দ্র করে উত্তাল পাকিস্তান সংঘ পরিবারের কর্মসূচি রূপায়ণের পথে আরেক পদক্ষেপ মোদি সরকারের? সরস্বতী পূজা উদযাপিত নিপুণের অপেক্ষায় ছিলেন বিজয়ীরা কাল শপথ নেবেন নবনির্বাচিত শিল্পীরা ব‌রিশা‌লে সড়ক দুর্ঘটনায় সা‌বেক সরকা‌রি কর্মকর্তা নিহত

ফোনে গোয়েন্দার আড়ি পাতা সাপে বরই হয়েছে, বলছে মুকুল শিবির

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ রবিবার, অক্টোবর ৮, ২০১৭,
  • 298 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

দু’দশক ধরে তিল তিল করে সংগঠনকে মজবুত করার কাজ করেছেন তিনি৷ দলের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদের পর সেই মুকুল রায়ের সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য পেতে যেভাবে গোয়েন্দাকে ব্যবহার করা হচ্ছে, তাতে ক্ষুব্ধ খোদ তৃণমূলের নিচুতলার একাংশ কর্মী৷ তাঁদের কথায়, ‘‘দলনেত্রীর পর তৃণমূলে যদি কেউ যোগ্য ব্যক্তিত্ব ছিলেন, তাহলে তিনি অবশ্যই মুকুল রায়৷ তৃণমূলে তাঁর অবদান কেউই অস্বীকার করতে পারবে না৷ কিন্তু তাঁর সঙ্গে যা করা হচ্ছে, তা আসলে নোংরামি ছাড়া আর কিছুই নয়৷’’

শুক্রবারই রাজধানী দিল্লির মাটিতে পা রেখেছেন মুকুল৷ শনিবার অধীর চৌধুরীর বাড়ি গিয়েছেন৷ সূত্রের খবর, রাজ্য রাজনীতির তিন মেরুর মেলবন্ধন হয় ওই বৈঠকে৷ অধীরবাবুর বাড়িতে মুকুল রায় যাওয়ার পরই সেখানে যান সিপিএমের বহিষ্কৃত সাংসদ ঋতব্রত চক্রবর্তী৷ স্বাভাবিকভাবেই ত্রয়ীকে নিয়ে বঙ্গ তৃণমূলে আলোচনার শেষ নেই৷

নিজে দল গড়বেন নাকি অন্য দলে (বিজেপি) যাবেন, এদিনও সেই রহস্য জিইয়ে রেখেছেন মুকুল রায়৷ সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহেই ঝুলি থেকে রহস্য উন্মোচন করবেন তিনি৷ সেদিকেই তাকিয়ে বঙ্গ তৃণমূলের বিগ্রেড৷ দুই মেদিনীপুর, জঙ্গলমহল, বর্ধমান, হাওড়া, দুই ২৪ পরগণা সহ রাজ্যের সিংহভাগ জেলার একাংশ তৃণমূল কর্মী সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন৷

মুকুল ঘনিষ্ট শিবির সূত্রের খবর, মুকুল রায়ের পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য পেতে তাঁর ফোনে আড়ি পাতার বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে আসায় আদতে সাপে বরই হয়েছে৷ কারন, এই ঘটনৈায় চরম ক্ষুব্ধ তৃণমূলের নীচুতলার কর্মীরা৷ মুকুল ঘনিষ্ট এক নেতার কথায়, ‘‘আমরা প্রয়োজন পড়লে দাদার রক্ষীদের মোবাইলে ফোন করে অনায়াসে প্রয়োজনীয় কথাবার্তা বলে নিচ্ছি৷ কিন্তু ফোনে আড়ি পাতার বিষয়টিকে কেউই ভালোভাবে দেখছেন না৷ এর থেকেই তো স্পষ্ট তৃণমূল মুকুল রায়কে ভয় পাচ্ছে৷ তাই তো তাঁর ওপরে নজরদারি চালানো হচ্ছে৷’’

ওই নেতার সংযোজন, মুকুল রায় প্রসঙ্গে শুধু উত্তর দিনাজপুর নয় সারা রাজ্যেই তৃণমূলে ভাঙন অবশ্যম্ভাবী৷ ইতিমধ্যে সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে৷ তৃণমূলের অন্দরেই ‘সততার প্রতীক’ প্রসঙ্গটি তীব্র সমালোচিত হচ্ছে৷ একান্ত আলাপচারিতায় তৃণমূলের নীচুতলার কর্মীরা অত্যন্ত ক্ষোভের সঙ্গেই বলছেন, ‘‘দলনেত্রীকে বলা হয় সততার প্রতীক৷ যিনি তিল তিল করে দলের সংগঠনটা গড়লেন, এখন গোপনে তাঁরই তথ্য পেতে গোয়েন্দাকে দিয়ে ফোনে আড়ি পাতানো কি তাঁরই নমুণা৷’’

ওই অংশের সাফ কথা, আমরা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছি৷ দাদা নতুন দল গড়ুক বা বিজেপি-তে আত্মপ্রকাশ করুক যেখানেই যাবেন আমরাও সেখানেই যাব৷ মুকুল রায় ইস্যুতে জোর জল্পনা চলছে তৃণমূল নেতাদের অন্দরেও৷ যদিও কৌশলগত কারণেই তাঁরা প্রকাশ্যে এবিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে নারাজ৷ রাজনৈতিক মহলের মতে, ধীরে ধীরে পরিস্থিতি যেদিকে গড়াচ্ছে তাতে তৃণমূলে ভাঙন অবশ্যম্ভাবী৷
আশঙ্কা বাস্তবায়িত হয় কি না, তার সদুত্তর অবশ্য মিলবে সময়েই৷

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »