১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ১:২৬

মমতা সহ পাকিস্তানপন্থীরা ঘোলা জলে ভারতবিরোধিতার মাছ শিকারের চষ্টা ।

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, এপ্রিল ৫, ২০২১,
  • 108 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে গিয়ে দাঙ্গা লাগিয়ে এসেছেন..
অনেকেই বলেন, মমতা ব্যানার্জী মিথ্যা কথা বলায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ান; এজন্য তাকে ‘মিথ্যাশ্রী’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়েছে। কিন্তু তিনি নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর সম্পর্কে যে জঘন্য মিথ্যাচার ও উস্কানিমূলক উক্তি বলেছেন- এটা কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত। এই ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন অসংলগ্ন লাগামহীন কথাবার্তা, ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে প্রভাব ফেলতে পারে।
সংবাদপত্র সূত্রে জানা গেছে, নরেন্দ্র মোদির সাম্প্রতিক বাংলাদেশ সফর কেন্দ্র করে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ করে তুলতে- পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা, বস্তায় বস্তায় টাকা খরচ করে একদল মতান্ধ জনগোষ্ঠীকে উস্কে দিয়েছিল। মমতা ব্যানার্জীর সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক অত্যন্ত পুরনো। তার দল তৃণমূল কংগ্রেস নির্বাচনে জিতলে লাহোর, করাচি, রাওয়ালপিণ্ডি, ইসলামাবাদে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।
এমন অভিযোগও অনেকে করেন যে, মমতা ব্যানার্জী পাকিস্তানের রিমোট কন্ট্রোলে পরিচালিত হতে অভ্যস্ত। যেমন, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কোন্নয়নে ‘তিস্তা চুক্তি’ একমাত্র অন্তরায়। ভারতের ফেডারেল রাষ্ট্র কাঠামোয়, নদীর জলের অধিকার সংশ্লিষ্ট রাজ্যের। এজন্য পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা মমতা ব্যানার্জীকে প্রভাবিত করছে – যাতে তিনি তিস্তা নদীর জলবন্টনে সম্মত না হন। কারণ তিস্তা চুক্তি হয়ে গেলে, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আর কোন অমীমাংসিত সমস্যা থাকবে না। এবং তাহলে তিস্তা চুক্তির কার্ড খেলে, পাকিস্তানপন্থীরা ঘোলা জলে ভারতবিরোধিতার মাছ শিকার করতে পারবে না।
নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের ওড়াকান্দিতে মতুয়া-তীর্থভূমি ও ঐতিহাসিক যশোরেশ্বরী মন্দিরে গিয়ে উপাসনা করায় ― নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ এনেছেন মমতা ব্যানার্জী। মমতা ব্যানার্জীর উদ্দেশ্যে আমি বলতে চাই, আপনি মসজিদে যাচ্ছেন, দরগায় যাচ্ছেন, সেখানে নামাজ পড়ছেন, রোজা রেখে ইফতার খাচ্ছেন। আপনার বিরুদ্ধে তো কেউ সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ আনে নি! কেননা আপনি যে ধর্ম বিশ্বাস করেন- সেই ধর্ম আপনি পালন করবেন; এতে অন্যের সমস্যা কোথায়! সুতরাং নরেন্দ্র মোদি যে ধর্ম বিশ্বাস করেন, সেই ধর্ম তিনি পালন করবেন। তাতে আপনার কিসের এত মাথাব্যাথা!
কৃত্তিবাস কাশীরাম

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »