১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ৮:৪৭

বিজেপির ঘরের শত্রু মীরজাফর কে ?

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, মে ৬, ২০২১,
  • 87 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ এতদিন হুমকি-ধামকি দিয়ে বলে বেড়িয়েছেন যে, তার কর্মীদের গায়ে হাত তুললে তৃণমূল গুণ্ডাদের হাত-পা ভেঙে, জামাকাপড় খুলে চরম শিক্ষা দিয়ে ছেড়ে দেবেন। এমনকি তিনি পুলিশের উদ্দেশ্যে পর্যন্ত বলেছেন,”… মনে রাখবেন আমাদের পায়ের নিচে থেকে আপনাদের চাকরি করতে হবে… বিহারে যদি জমি কিনতে হয়, আমার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন…”
ফলাফল ঘোষণার পর তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা- বিশেষ করে দুধেলা গাইরা ইতিহাসের ভয়াবহতম সম্প্রদায়িক সন্ত্রাস চালাচ্ছে; অথচ দিলীপ ঘোষ দামাল ষাঁড় থেকে একেবারে ছিন্ন-মুষ্ক নিরীহ দামড়ায় পরিণত হয়ে গেলেন!
গত ২ মে ভোট গণনার দিন বিকেলবেলা আমি নিশ্চিত হয়ে যাই যে, ইভিএম কারচুপি হয়েছে। কিন্তু অবাক হয়ে লক্ষ্য করছিলাম, ঐ বিষয়ে বিজেপির নেতারা কোন অভিযোগ করছেন না। সন্ধ্যার আগে ইভিএম কারচুপি সংক্রান্ত (অন্যত্র) একটি লেখা পাঠাই। এরপর আমার একজন শুভানুধ্যায়ী ঐ বিষয়ে আমার সঙ্গে ফোনে দীর্ঘ আলোচনা করে। সন্ধ্যার পর মুখ্য নির্বাচন অধিকর্তার ধর্মীয় পরিচয় ও বিতর্কিত ভূমিকা নিয়ে সেখানে আরও একটি লেখা পাঠাই। কিন্তু আমার কাছে মনে হচ্ছিল, চতুর্দিকে যেন কুম্ভকর্ণের গভীর নিদ্রা।
দুধেলা গাইদের উপর্যপুরি রিপোর্টে এই প্রোফাইলের রিচ যদিও অনেক কমে গেছে, পোস্ট করতে পর্যন্ত একাধিকবার চেষ্টা করতে হয়; তবুও রাতের বেলা ফেসবুকে ইভিএম কারচুপি প্রসঙ্গে পরপর দু’টো পোস্ট করি। একটু বিলম্বে হলেও সামাজিক মাধ্যমে ভোট পুনর্গণনার দাবি ওঠে। বিজেপির মধ্যম স্তরের নেতারাও মুখ খুলতে শুরু করেন। কিন্তু রাজ‍্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ঐ প্রসঙ্গে একেবারেই চুপ, চুপ বড় বড় সব নেতাররা !
যে দুধ কুমার কে এতদিন রাজ্য বিজেপি পাত্ত দেেয়নি সে বিপদে কর্মিদের পাশে দারিয়েছে , দারিয়েছে শান্তনু ঠাকুর , কুচ বিহার , বনগাঁর স্বপন মজুমদার বাকিরা কই ।
গতকাল ধরনায় বসে শুভেন্দু অধিকারী সহ রাজ‍্য বিজেপির বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট নেতা, ইভিএম কারচুপির প্রতি ইঙ্গিত করে- ভোট পুনর্গণনার দাবি তুলেছেন। অথচ বাচাল প্রকৃতির দিলীপ ঘোষ- দলীয় সভাপতি হওয়া সত্ত্বেও রিকাউন্টিং-এর প্রসঙ্গে মুখ থেকে কোন শব্দ অপচয় করেন নি।
গোমূত্র পান করে করোনা জয় করার ঘোষনা দেওয়া দিলীপ ঘোষ, প্রতিটি নির্বাচনী এলাকায় বিজেপির পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের সরিয়ে – তৃণমূল কংগ্রেসের দলছুট নেতাদের এনে বসিয়ে, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপিকে পরিণত করেছেন ‘তৃণমূল বি টিম’-এ। সঙ্গত কারণেই জনমনে প্রশ্ন : কে এই নব্য মীরজাফর!

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »