১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ রাত ৮:৪১

শেখ হাসিনা মানবতার মা এবং বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বৃহস্পতিবার, মে ৬, ২০২১,
  • 74 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার মা এবং বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, সাধারণ মানুষের দুঃখ দুর্দশা লাঘবের প্রচেষ্টায়, তা বাস্তবায়নে রাত-দিন কাজ করে যাচ্ছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী।নগরীর শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে বৃহষ্পতিবার ,৬ মে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে দেড় হাজার খেটে-খাওয়া দরিদ্র, দুঃস্থ, ভাসমান এবং অসচ্ছল মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। উপহার সামগ্রীতে ছিলো চাল, ডাল, আলু, তেল, লবন, চিনি, সেমাই ।

পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীম এমপি বলেছেন, “ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন সাধারণ মানুষকে মাস্ক ব্যবহারে বাধ্য করতে যে শাসন করছেন, সেজন্য আজ এখানে করোনার সংক্রমণ কমে আসছে।”

বরিশালের ভালোর জন্য আমরা সবাই মিলে মিশে কাজ করছি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বিশেষ করে ঈদের নামাজ আদায়ের সময় দুরত্ব বজায় রাখত হবে এবং এক জায়গাতে বেশি লোক সমাগম করা যাবে না। তা না হলে ঈদের পরের দিন থেকে করোনার সংক্রম বাড়তে থাকবে।

এসময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের কাজ হলো দুঃখ দুর্দশাগ্রস্থ মানুষদের দুঃখ দুর্দশা লাঘব করা ।প্রধানমন্ত্রী এ মন্ত্রনালয়ের কোন প্রকল্পে না বলেন না। করোনাকালে গোটা বিশ্বে অর্থনৈতিকভাবে তাদের কার্যক্রম সীমিত করা হয়েছে, বাংলাদেশেও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে একটা ব্যতিক্রম আছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় কল-কারখানা এখনো চালু আছে, বিদেশ যে সব শ্রমিকের যাওয়ার কথা তাদের কিন্তু স্পেশাল ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী মানবতার মা হিসেবে যে আপনাদের কথা চিন্তা করছেন, তাকেও আপনারা সহযোগিতা করুন। সহযোগিতা মানে- আপনাদের নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে হবে, আর এজন্য মাস্ক পরতে হবে সবাইকে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। ভারতের অবস্থা দেখুন চারমাস আগে কি ছিলো, এর এখন সেখানের অবস্থা কি? আপনারা অনেকেই মনে করেন করোনার সংক্রমন কমে আসছে, কিন্তু এটি যে কোন সময় ভয়াবহ রুপ নিতে পারে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার প্রথম দিক থেকেই আমি নিজে ত্রাণ, খাদ্য সহয়তা দেয়া শুরু করেছি, সচেতনতামূলক লিফলেট দেয়া শুরু করেছিলাম। আমি শুরু করার পর জেলা প্রশাসন শুরু করেছিলো। আজ যে জায়গাতে করোনা ইউনিটটি চালু করা হয়েছিলো সেটিও জেলা প্রশাসনকে নিয়ে আমরা নির্ধারন করেছিলাম। এরপর সেখানে ধীরে ধীরে অনেক কিছু সংযোজন হয়েছে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ সাইফুল হাসান বাদল, বরিশাল মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান,বরিশাল জেলার পুলিশ সুপার মোঃ মারুফ হোসেন, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মোঃ ইউনুস, বরিশাল মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহমুদুল হক খান মামুন।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »