৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ রাত ১:২১
ব্রেকিং নিউজঃ
ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার স্ট্যান্ডার্ড ৮৫টি প্রশ্ন ব্যাংক ও উত্তর নিজে শিখুন এবং অন্যকে শেখার জন্য উৎসাহিত করুন। আবার ভুমিদস্যুর হাতে আহত সংখ্যালঘু হিন্দু… বাংলাদেশেও অর্থপাচারের অভিযোগ পার্থের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের সম্পর্ক উন্নয়নে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকা ঢাকায় ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ১১ দুর্ঘটনাস্থলে সিগন্যাল, লাইনম্যান ছিল না আদমশুমারি: জনসংখ্যা সাড়ে ১৬ কোটি, পুরুষের চেয়ে নারী বেশী, কমেছে হিন্দু জনগোষ্ঠী সিলেটের হবিগন্জে হিন্দুদের উপর হামলা একজন নির্যাতিতের আকুতি। রাজশাহী বাঘার কৃতিসন্তান রথীন্দ্রনাথ দত্ত যুগ্ম-সচিব হওয়ায় সর্ব মহলের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

পর্নোগ্রাফির কারণে টিকটক নিষিদ্ধ!

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০১৯,
  • 209 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

বর্তমানে বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপগুলোর মধ্যে রয়েছে চীনা ভিডিও অ্যাপ টিকটক। কিন্তু এর ব্যবহার নিয়ে রয়েছে নানা বিতর্ক। এসব বিতর্কের মধ্যেই থেকে নিষিদ্ধ হলো টিকটক অ্যাপ। গুগল ও অ্যাপল স্টোর থেকে টিকটক ডাউনলোডের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করল সরকার। এর মধ্যেই গুগল থেকে জন্য ব্লক করা হয়েছে অ্যাপটি।

গতকাল মঙ্গলবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানা যায়। মস্তিস্কে বিক্রিয়া সৃস্টি করছে এই এ্যাপ শিশুদের জন্য ভয়ানক ক্ষতির কারন হতে পারে ।

এর আগে ভারত থেকে টিকটক অ্যাপের নিষেধাজ্ঞার স্থগিতাদেশ চেয়ে উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হয়েছিল চীনের বাইটড্যান্স টেকনোলজি। এই অ্যাপটি বাইটড্যান্স টেকনোলজির মালিকানাধীন এবং ভারতে এর বাজার অনেক বেশি। কিন্তু আদালত তাদের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে।

গত ৩ এপ্রিল টিকটক নিষিদ্ধের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে জানায় উচ্চ আদালত। আদালত থেকে বলা হয়, এই অ্যাপটি পর্নোগ্রাফিকে উৎসাহিত করছে।

তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক (আইটি) মন্ত্রণালয় জানায়, কেন্দ্র থেকে গুগল ও অ্যাপলকে নির্দেশ মানার জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে।

এরপরই গতকাল মঙ্গলবার থেকে গুগল থেকে ডাউনলোড করা যাচ্ছে না টিকটক।

এক বিবৃতিতে গুগলের তরফ থেকে বলা হয়, কোনো অ্যাপের ব্যাপারে তাদের কোনো মন্তব্য নেই। তবে তারা স্থানীয় আইন মেনেই চলবেন।

তবে অ্যাপলের তরফ থেকে এখন পর্যন্ত চিঠির জবাব আসেনি। গুগলের পদক্ষেপ নিয়ে টিকটকও তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি।

এর আগে টিকটক অ্যাপের নিষেধাজ্ঞার দাবিতে মামলা করেছিলেন এক ব্যক্তি। আর এর পর থেকেই এই অ্যাপটির ব্যবহার নিয়ে শুরু হয় নানা বিতর্ক।

গত ফেব্রুয়ারিতে অ্যাপ বিশ্লেষক সংস্থা সেন্সর টাওয়ার জানিয়েছে, ফেব্রুয়ারিতেই ভারতে টিকটক অ্যাপটি ডাউনলোড করা হয়েছে ২৪০ মিলিয়ন বার। এর আগে জানুয়ারিতে ভারতের ৩০ মিলিয়নেরও বেশি ব্যবহারকারী এটি অ্যাপটি ডাউনলোড করেন।

টিকটক ব্যবহারকারীরা অ্যাপটির মাধ্যমে বিভিন্ন স্পেশাল এফেক্ট দিয়ে ছোট ছোট ভিডিও তৈরি করে তা শেয়ার করতেন। অ্যাপটি খুব দ্রুত ভারতে জনপ্রিয়তা অর্জন করে। কিন্তু ভারতীয় রাজনীতিবিদদের অনেকেই এই অ্যাপটির ব্যাপারে সমালোচনা করে আসছিলেন।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »