২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ রাত ৯:৫৮
ব্রেকিং নিউজঃ
কৃত্বিতে খ্যাতি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একজন মুন্সী আব্দুল মাজেদঃ ঝুমন দাশের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে প্রশ্ন : এক হিন্দুকে বাদী করতে চেয়েছিলেন শাল্লার ওসি আফগানিস্থানে শিক্ষাকেন্দ্রে আত্মঘাতী হামলা : নিহত ১৯ টাঙ্গাইলের মধুপুরে হিন্দু যুবককে কুপিয়ে আহত করে জাহেদুল বিমানবন্দরে সাফজয়ী কৃষ্ণা রানীর আড়াই লাখ টাকা চুরি ভারতের নতুন হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা ঢাকায় কপাল পুড়বে ১৪০ এমপির প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে সঙ্গী হলেন যারা কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীতে হিন্দুদের বাড়ি-ঘর ও দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। রাঙ্গামাটিতে সুভাষ দাস ও মনি দাস দম্পতিকে গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন

ময়মনসিংহে জেলা পরিষদের কর্মকর্তারা মন্দির ভেঁঙ্গে দেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইমঃ সোমবার, ডিসেম্বর ৪, ২০১৭,
  • 473 সংবাদটি পঠিক হয়েছে

ময়মনসিংহে রবিবার শহরের পাটগুদাম ব্রীজ এলাকায় রাজা বিজয় সিংহ দূরদূরিয়া শিব ও দূর্গা মন্দির জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী এ এইচ এম লোকমান হোসেন, সচিব বনানী বিশ্বাস এবং ম্যাজিস্ট্রেট এর উপস্থিতিতে ভেঙ্গে ফেলা হয়। তবে মন্দির ভাঙ্গা বা সরানোর জন্য আগে থেকে কোন নোটিশ দেয়া হয়নি। জেলা পরিষদ জায়গাটি প্রথমে দাবি করলেও পরবর্তীতে তারা তা অস্বীকার করেন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, কর্মকর্তারা এসে সব ভেঙ্গে ফেলেন। মূর্তিটিকে বাইরে ফেলে রাখা হয়।

মন্দিরের পুরোহিত জানান, মায়ের মন্দির ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। আমার থাকার ঘরও ভাঙ্গা হয়েছে। জায়গা নিয়ে মামলা হচ্ছে। এটি দেবোত্তর সম্পত্তি। এ মন্দির ভাঁঙ্গা নিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে বিশাল ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সোমবার দুপুরে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষেদের সভাপতি এড. বিকাশ রায়, পুজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর সাহা, সাধারন সম্পাদক রবেট চক্রবর্ত্তী, বিজয় সিংহ দূরদূরিয়া শিব, দূর্গা মন্দিরের সভাপতি চন্দন কুমার পাল, সাধারন সম্পাদক রতন পন্ডিত, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক প্রদীপ মোহন পাল, মহানগর পজিা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি সঞ্জয় ঘোষ, হিন্দু মহাজোটের সভাপতি নারায়ন চন্দ্র পাল, সুজিত বর্মন, সজল চন্দ্র দেব প্রমুখ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নেতৃবৃন্দরা জানান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জায়গাটা জেলা পরিষদের না হলেও তিনি মন্দিরটি ভাঁঙ্গবেন। এটা খুব খারাপ বিষয়।

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক জানান, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য ম্যাজিষ্ট্রেট আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন। মন্দির ভাঙ্গার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত ছিল না। ঘটনাটি দুঃখজনক। মন্দির থেকে যে মুর্তিটি বাইরে ফেলে রাখা হয়েছে, তা রঘুনাথজি আখড়ায় সাময়িক ভাবে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ ...
© All rights Reserved © 2020
Developed By Engineerbd.net
Engineerbd-Jowfhowo
Translate »